সাম্প্রতিক প্রকাশিত কবিতা

  1. ঘাস ফড়িং-২ - ॥পিঁপড়ার মত গুটি গুটি অক্ষরে ॥সন্ধ্যার সব নদী কালো কালো ট্রাঙ্কে ॥গোপনে তালাবন্দী ॥ ॥উপার্জনহীনভাবে দিনের পর দিন ॥খুঁজেছি চাঁদ ॥আকাশ থেকে অন্য আকাশ ॥বিপন্ন বিস্ময়ে ॥ ॥কুঁচো চিংড়ি খেয়ে গ্যাছে জোনাক ॥ওখানে ছিল না চাঁদ ॥আদিম সাপের মত ছড়ানো অন্ধকার ॥চাঁদ চলমান ॥হেঁটে গ্যাছে জাদুকরী রুমালের মতো ॥রক্তাক্ত পায়ে গোলাপের প্রলোভনে ॥মধ্যরাত্রে ॥আঁটকে গ্যাছে […]
  2. আমরা সমাজের না সমাজ আমাদের - আমরা সমাজের না সমাজ আমাদের – রামপ্রসাদ (হলুদ ঘাস ) সমাজ সমাজ বলি আমরা সবই সমাজের দোষ, আমাদের নিয়েই সমাজ গড়া,আমরাই নির্বোধ ! মোড়ে মোড়ে নেশার দ্রব্য,কালো চশমা চোখে ? প্রকাশে গিলছি আমরা ,আমাদের ভবিষ্যতকে ? সব কিছুই লোক দেখানো ,সবার ভালো চাই, স্বার্থের নেশাতে টিপছি গলা ,আদর্শ পুড়ে ছাই! মা বাবাকে বাসবো ভালো,শিক্ষক দেন […]
  3. অসহায় জীবন – - অসহায় জীবন – রামপ্রসাদ (হলুদ ঘাস ) নিশুতি রাতে,জনশূন্য পথে, একাকী পথ চলা ! কাতর, কাঁপা, নিঃসঙ্গ এক কুকুর ছানার দেখা।। অবিরত হাঁকডাক,বাঁচবার চিৎকার, গভীর শীতের রাতে। বুক ধড়ফড়, কুয়াশায় ভরা, অবুঝ হৃদয় কাঁপে।। জাপটে ঘাড়ে,ঝোঁপের ধারে জঞ্জাল দিল ফেলে, ভুল কি ছিল পৃথিবী দেখা? জীবন হেসে বলে? ধীরে ধীরে আসল কাছে, পেতে চায় একটু […]
  4. অসহায় জীবন – রামপ্রসাদ (হলুদ ঘাস ) - অসহায় জীবন – রামপ্রসাদ (হলুদ ঘাস ) নিশুতি রাতে,জনশূন্য পথে, একাকী পথ চলা ! কাতর, কাঁপা, নিঃসঙ্গ এক কুকুর ছানার দেখা।। অবিরত হাঁকডাক,বাঁচবার চিৎকার, গভীর শীতের রাতে। বুক ধড়ফড়, কুয়াশায় ভরা, অবুঝ হৃদয় কাঁপে।। জাপটে ঘাড়ে,ঝোঁপের ধারে জঞ্জাল দিল ফেলে, ভুল কি ছিল পৃথিবী দেখা? জীবন হেসে বলে? ধীরে ধীরে আসল কাছে, পেতে চায় একটু […]
  5. স্পর্শেে তুমি - নিস্তব্ধ গহীন রাতে দু’চোখ বুজলেই টের পাই তোমার মায়াবী শীতল পরশ আমার হৃদয় নদীতে দুকূল ছাপিয়ে জোয়ার আসে, তোমার ঠোঁটের উষ্ণ স্পর্শে সমুদ্রের ঢেউয়ের মতন তরঙ্গীত হয়ে উঠে দেহম। প্রতিটি জোছনা ভেজা রাতে তোমাকে ভেবে অভিভূত হই আরো ভালবেসে ফেলি তোমাকে।
  6. ভালোবাসি - আমার হৃদয়ের খুব কাছে একান্তই কাছে এসে একদিন তোমার রুপোর মত মুখ-খানি এনে বলেছিলে ভালোবাসি, কেবল তোমায় ভালোবাসি। পদ্ম পুকুরের জলের মতো শুভ্র বেলীর ঘ্রাণের মতো মেঘের বুকে কালো আদরের মতো নীরবে নিভৃতে প্রেমালাপের মতো আমার চোখের কাজলের মতো তোমায় ভালোবাসি আমি।।
  7. উজান নদী - মাগো তুমি কেমন আছো,আছো যে কত দূরে? আজকে ভীষণ পড়ছে মনে ,ভাষাই নয়ন জলে! পাইনা খুঁজে কোথাও আমি,এমন হাসি মুখ , ওই মুখেই লুকিয়ে ছিল,আমার যতই সুখ ! স্নানে ভেজা আঁচলে মোছা আগলে রাখা হাত ফুঁ দিয়ে মা সরিয়ে দিতো,আটকে থাকা ভাত! মায়ের চাঁদ,চাঁদের টিপ কপাল জুড়ে আলো, আজকে ভীষণ পড়ছে মনে ফুরায় রাতের কালো […]
  8. শ্রেষ্ঠত্বে মা - হয়তো হারিয়ে যেতাম মায়াবী এক দেশে …, পেলাম আমি মা”য়ের দেখা সূর্য ডোবার শেষে ! আঁচল হাওয়ায় ঘুমপাড়ানি হাতের স্নেহ পরশে, “আমার সোনা,চাঁদের কণা”দোলায় “মা” হরষে ! কাক-ভোরে ডাকে মায়, ওঠো… খোকন জাগো, মেলেছি নয়ন,দেখেছি ভূবন,বুকে আগলে রাখো! দুষ্টুমির পাগল পনায়, জ্বলনে শরীর পোড়ে, মায়ের হাসি, চোখের পাতায় অকাল শ্রাবণ ঝরে! অতীত স্মৃতি পড়লে মনে […]
  9. চঞ্চল মন,প্রকৃতির কবিতা - ############## সবুজ ফসল,মেলেছে আঁচল থমথমে ঝিলের জল ! কিলবিল চারাপনা,আনন্দে আদখানা শিকারীর বেশে বক! গেড়ি গুগলির দ্বয়,বিভোরে ঘুমোয়, অচেতন কাদামাখা শরীরে ! শামুকে ডিম পাড়ে,সোনাব্যাঙ এ স্নান করে নীলাকাশে ভানু”র উদয়! ডালে বসে ঘুঘু পাখি,অকারণে ডাকাডাকি ওৎ পেতে মাকড়শার দল! শালুকের ফুলে,ভ্রমরেরা খেলে কালো মেঘে ধরেছে মাদল!
  10. আমার অহংকার - মাটির ঘরের খড়ের চালা সূর্যমুখীর পেখম তোলা! উঠোনের ওই তুলসী তলায় জপে কৃষ্ণ রুদ্র মালায় ! গৃহ বধূর পুজোর ডালি মঙ্গল দ্বীপ কাঁসার থালি! নানান রঙের ফুলের সাজি চন্দন- চুয়া ,ধূপ …দূর্বা”দি! উঠান তলায় দূর্বা কমল লুটায় বধূর শাড়ির আঁচল! দালান জুড়ে নয়ন তারা মাতলো রঙে কৃষ্ণচূড়া! পুকুর পাড়ে বকুল গাছে টিয়া,শালীক, কোকিল ডাকে! বকুম […]
  11. চোখের পাতায় - গত বছর পুজোয় মামা দাদুর ওখানে পূজোটা কেটে ছিল খুবই আনন্দে ! স্বামী হারা দিদিমার হাত ধরে অষ্টমীর বিকেলে পুজোয় ঘোরা, সঙ্গে মামাতো বোন রেখা ।ভিড়ের মাঝে হারিয়ে যাওয়া গ্যাস বেলুন আর বোনের ছল ছলে চোখ !ফিরিয়ে দেওয়া নিজের বেলুন পেয়ে উৎমুক্ত নন্দিনী”র হাঁসি ! জিলিপির মিষ্টি সুগন্ধ,ছোটদের ঘোড়ায় চড়া দোলা,ফেরি দেওয়া বাঁশিওয়ালার সুমধুর সুর […]
  12. জীবন এক রঙ্গমঞ্চ - এক ফালি চাঁদ আকাশের এক কোণে, আশা গুলো নানান রঙে স্বপ্ন শুধু বোনে ! স্নিগ্ধ আলোয় ভুবন ভরা জোনাকির মিটিমিটি, স্মৃতিই যে আনে বারবার জীবনের অনুভূতী। জীবন তরী বাইছে খেয়া হাঁক ছাড়ে ওই পারে নীরব রাতের হীরের হাসি উছলায় সাগরে! ভাবনার ঘরে কুড়োনো স্বপ্ন ভোরের শুকতারা, কালের নিয়মে ডুববে তরী রইবে পড়ে খেয়া! রঙ্গমঞ্চে আলো-আধাঁরে […]
  13. সোনালী দিন - মাস্টার মশাই ভীষণ রাগী, চশমা নাকের ডগায় …! পড়াশুনায় অমনোযোগী কানধরে ওঠায় -বসায়..! পথের ধারে বাবু”র বাগান মস্ত বড় পাঁচিল ! ফুল চুরিতে পড়লে ধরা পাহারাদারের চড়- কিল! ভরা রোদে লাটিম ঘুড়ি আমসত্ত্ব ঝাল, দল বেঁধে খই-দই ভোরের কুড়ানো তাল! ধূলো উড়িয়ে স্কুলের পথে চোর-পুলিশ খেলা, দৌড় ঝাঁপে,মিলি একসাথে ছুটির দুপুর বেলা! কলা মান্দাসের ভেলায় […]
  14. নিশি পাওয়া-১ - একটি দিঘির ভেতর জন্মান্ধ কনিষ্ঠ আঙুল হেঁটে যেতে যেতে কনফেকশনারিতে সাজিয়ে রাখা নানা কিসিমের চেনা ভূগোলের গল্প খোঁজে! একটি প্রাচীন স্রোত মাটিলগ্ন চতুষ্কোণ চোখের ভেতর থেকে প্রবাহিত হচ্ছে সারিবদ্ধ নারীর শরীরে, ক্রন্দনরত সাপের যজ্ঞযাত্রায় ঠোঁট ফেটে চৌচির একটি চঞ্চুহীন পাখি। মলাটের ভেতর থেকে খসে যাচ্ছে আহত আঙুরবাগান মামলার সাক্ষী ঋতুমতী চাঁদ! দুটি উল্টানো গেলাশ… টুকরো […]
  15. নিশি পাওয়া-২ - পাথরদের সরাইখানায় আট দশটি আরশোলার চিৎকার আধ খাওয়া তিনটি সিগারেট আর সাতটি শালিকের তাসের বাজির প্রচুর কোলাহল অথচ আমরা কোনো শব্দই শুনতে পাই না । আমাদের আর্তনাদের মস্তিষ্ক বিচূর্ণ রাত্রির ঘাম খেয়ে বেঁচে থাকছে রক্তলাগা ত্বকে অর্ধ-সিদ্ধ একখণ্ড মাংস সেদ্ধ করে করে সেদ্ধ করে করে পরিত্যক্ত মৈথুনে দীর্ঘ পথ ভেসে যাচ্ছি শূন্যে । -স্বপ্নময় স্বপন©
  16. নিশি পাওয়া - ঘাস ঘাসের ভেতর থেকে অদৃশ্য সুতো ধরে উড়াল দিল নিজের আগুনে আমার চার পাশে পোড়ে মধ্যরাত এই শতাব্দীর অন্ধকার ঘরে নগ্ন রূপসীর রাঙা অভিশাপ স্বচ্ছ কাঁচের মতো আদর্শ রাতভোর আত্মা বিক্রি ক’রে বিজোড় পতিতার বিছানা নির্মাণে আমার জন্ম বিঁধে আছে জন্মান্ধ বিড়ালের পৃষ্ঠদেশে শব্দহীন এক দোকানদার ল্যাম্পোস্টের মতো পড়ে থাকে কুমারী প্লেটের গিঁটে একগুচ্ছ ভুল […]
  17. ভালবাসার বর্তমান !!! - তোমায় আমি ভালবাসি, তাই যে এত কাছে আসি, রইব দুজন পাশাপাশি , চলবে ভালবাসা-বাসি!! যদিও কাছে আসি মরন, তবুও তোমায় করবো স্মরণ, আসুক বাধা, যত আসে- রইবো আমি তোমার পাশে, ছাড়বো না হাত হাজার দুঃখে, তখন সবার মুখে মুখে, ছড়িয়ে যাবে এই ধরাতে, আমাদের প্রেম কাহিনী !! বুঝবে লোকে, জানবে সবাই প্রেম যে কাকে বলে!!! […]
  18. কঙ্কাল: অদেখা ভবিষ্যৎ - জীবনে হঠাৎ উত্থাপিত আশা গুলো আজ কোথায় হারালো, মনের মধ্যে জিঘাংসার তাণ্ডবে সফেন সমুদ্র ঘোরালো, কতকিছু ভাবনা চিন্তায় আজ অস্থির সৌজন্য , নিশিদিন নীলপদ্মে মনের বৃত্ত বড়ই শুন্য ।। যে যার মতো করে সামনের পথ দেখছে, এইভাবেই জীবনের কঙ্কাল সবার সামনে ঝুলছে— আমিও ভাবছি পথ খুঁজব, অন্তর্বর্তী শূন্যতা সবার সামনে নগ্ন করবো।। শৈশবের মুগ্ধতা, কৈশোরের […]
  19. অপ্রকাশিত - কিছু ভাষা যারা কখনো মুছতে পারেনা অপ্রকাশের অভয়ারণ্য তাদের চোখে বয়স্ক মোটা ফ্রেম অনেক কথা গোপন রাখে কথা বলার জন্য হাওয়াকে আশ্রয় করে ছুটে চলে মনখারাপের প্লেট বিক্রি হয় চোরবাজারের ভাঁজে প্রতিটি জিভ আড়ষ্ট হতে হতে একসময় স্থির অনন্ত সূর্যরশ্মি মুছে নেয় ঘাম- অভিযোগ নকশী কাঁথা পেতে বিশ্বাস খোঁজে সন্নিহিত দুটি গ্রাম বিলের ধার থেকে […]
  20. ছুঁয়ে দিলে:পুনরাধুনিক কাব্য - আমাকে নিমীলিত চোখ দুটি ছোঁয় ছুঁয়ে দিলে আমি।পাথর । আমাকেও কবিতা ছোঁয় তুমি।নদী শরীরে শরীরে জল । বাড় বাড়ন্ত … আলো ছুঁয়ে ঢেউয়ে ঢেউয়ে।ভাঙন । তুমি ছুঁয়ে। দিলে আমি বানভাসি… -স্বপ্নময় স্বপন©

নতুন কবিদের তালিকা দেখুন

[A]

বিভিন্ন বিষয় ভিত্তিক কবিতা

ভারতবর্ষের কবিতা বাংলাদেশের কবিতা
প্রেমের কবিতা বিরহের কবিতা
আবৃত্তির কবিতা মুক্তিযুদ্ধের কবিতা
একুশের কবিতা স্বাধীনতার কবিতা
বামপন্থী কবিতা অস্থির সময়ের কবিতা
সমাজের কবিতা রাজনৈতিক কবিতা
দেশের কবিতা প্রতিবাদের কবিতা
জীবনের কবিতা নারীবাদী কবিতা
এই সময়ের কবিতা নারী জীবনের কবিতা
কলকাতার কবিতা গ্রামের কবিতা
শহুরে জীবনের কবিতা ছড়া
শীতের কবিতা বৃষ্টির কবিতা

[A]