বৃষ্টির কবিতা

পান্থ – শ্রীজাত

এমন কোনও পন্থা হয়, যেখানে তুমি ঠিক?
দাঁড়িয়ে ছিলে ফিরবে ব’লে, হারিয়ে গেছে দিক।

সকাল থেকে মুষলধার, বিষাদবর্বর
ফেরার কথা ভুলিয়ে দিল, যাদের ছিল ঘর
দিনের নাম বদলে দেয় পাহাড়সৈনিক –Read More »পান্থ – শ্রীজাত

বৃষ্টি বলুক – শ্রীজাত

সমুদ্রে কেউ যাচ্ছে না আজ, সতর্ক রেডিও
তুমি কেবল ঝড়ের মুখে চুল সরিয়ে দিও।

জানলা খোলা, এ মরসুমে পর্দারা উদ্ধত-
ঠান্ডা হাওয়ায় এক পেয়ালা গরম কফি’র মতোRead More »বৃষ্টি বলুক – শ্রীজাত

লা নত্ত্যে – শ্রীজাত

কাঠবাংলো। চেনে কেবল অলীক পিওনই।
এগোই, যেন স্লো মোশনে আন্তনিওনি।

ঠিক যেখানে ‘কাট’ হবে, তার পরেই ঘন মেঘ
তোমার কথায় জেগে ছিলাম, সে কোন জনমে…Read More »লা নত্ত্যে – শ্রীজাত

বৃষ্টিশেষের গ্রামটি – শ্রীজাত

নুনের ছায়া ভাসছে জলে। আপেলগাছে রোদ।
বৃষ্টিশেষের গ্রামটি একা। এবার তো ফেরো…

নিচুমুখের একটি ঘোড়া হেমন্তবাহী –
রুটির পাত্রে বন্দি আকাশ। জাফর পানাহি।Read More »বৃষ্টিশেষের গ্রামটি – শ্রীজাত

ইঁয়ুহি প্যহলু মেঁ – শ্রীজাত

জেগে থাকা জুড়ে জুড়ে সেলাই করেছি যত ঘুম –
‘যানে কী জিদ না করো’- বলেছেন ফরিদা খানুম।

কে যে সাধে যেতে চায়, সরাইখানায় বাঁধা ঘোড়া
লোকে বলে জাতিস্মর। কবি, স্বপ্ন দেখার মহড়া।Read More »ইঁয়ুহি প্যহলু মেঁ – শ্রীজাত

একটি বৃষ্টির সন্ধ্যা – জয় গোস্বামী

চোখ, চলে গিয়েছিল, অন্যের প্রেমিকা, তার পায়ে।
যখন, অসাবধানে, সামান্যই উঠে গেছে শাড়ি—
বাইরে নেমেছে বৃষ্টি। লন্ঠন নামানো আছে টেবিলের নীচে, অন্ধকারে
মাঝে মাঝে ভেসে উঠেছে লুকোনো পায়ের ফর্সা আভা…Read More »একটি বৃষ্টির সন্ধ্যা – জয় গোস্বামী

প্রেমিক জনের চিঠি ২ – শ্রীজাত

ওই কথা কি এভাবে কেউ বলতে পারে?
হঠাৎ করে, সিড়ির বাঁকে, অন্ধকারে

নিশ্বাস নাক গন্ধ পোহায়, চনমিয়া…
ঘুপচি মতাে মুঠোর ভেতর একলা টিয়াRead More »প্রেমিক জনের চিঠি ২ – শ্রীজাত

ভূতের গল্প – শ্রীজাত

অন্ধকারের ছমছমে হাত, চমকে গেছে গা।
কে তার পিঠে হাত রেখেছে? ‘অমন করে না’

কে বলে রে? চেনা গলি? আবছা মুখে সে
ছাদের ধারে হাত বাড়িয়ে ধরতে এসেছে।Read More »ভূতের গল্প – শ্রীজাত

প্রিয় চড়াই – শ্রীজাত

জাপটে ধরে বলব, ‘আমায় চাই?
বৃষ্টি তখন উল্টো ডাঙার মোড়ে
নরম গালে মাখিয়ে দেবো ছাই।
জানিস না তুই, পাখিরা রােজ ওড়ে?

ডানার ভাঁজে মুখ ঘষে, বেশ।
ভিড় করে সব দেখবে কেমন যা তা!
লজ্জা উধাও, ওড়না যখন শেষ…
এক মুহূর্ত থমকে কলকাতা।Read More »প্রিয় চড়াই – শ্রীজাত

বৃষ্টি বিকেল – শ্রীজাত

বিকেল বেলার ভাঙা ঘুমে পর
এক কাপ চা, ধোঁয়ায় ঢাকা ঘর,

দুপুরে খুব বৃষ্টি হয়ে ঝিম
দূরে যত বাড়ি টিম টিম

কেমন একটা ভিজে মত মন
মুখ থুবড়ে বন্ধ আছে ফোন।Read More »বৃষ্টি বিকেল – শ্রীজাত

রংমশাল – শ্রীজাত

অনেকদিনের উপােসী ঠোঁট
না-হয় তাকে না আটকালে
বরং তােমার জমিয়ে রাখা
আগুন দিও রংমশালে…

এক ডাকে সক্কলে চেনে।
লুঙ্গি থেকে চম্পাহাটি
সে কেন রােজ তােমার কোলে
খুঁজতে আসে শীতলপাটি?Read More »রংমশাল – শ্রীজাত

ইলশে গুঁড়ি – শ্রীজাত

মেঘের নিচে লাইন পাতা। ট্রেন চলে না।
সকাল থেকেই দিচ্ছে হাওয়া ইচ্ছে বুড়ি
হাত বাড়িয়ে বর্ষাকালের মিছরি কেনা…
মনখারাপের সাক্ষী কেবল ইলশেগুঁড়ি।Read More »ইলশে গুঁড়ি – শ্রীজাত

বর্ষা দিনে – উদয় দেবনাথ

ঠোঁট তার শব্দ বিমুখ । চোখে কী ভীষণ প্লাবন।
মনে এঁকে ঘৃণার হিসেব, তুমি তাকে জীবন ভাবছে ।।

এই নিয়ে জ্বলুক আগুন। স্নেহ হােক পাথর ক্ষণিক।
তুমি শুধু রাগ দেখেছ, ঝাপসা দু-চোখ দেখােনি।।
Read More »বর্ষা দিনে – উদয় দেবনাথ

বৃষ্টি, তুমি ও কলকাতা – অরুণাশিস সােম

তোমার ভেতর এক হাঁটু জল জমা,
হাঁটছি আমি, সঙ্গে নিয়ে ছাতা,
ঝগড়া শেষে ঠোটই বলে ক্ষমা,
বৃষ্টি হলে এটাই কলকাতা।Read More »বৃষ্টি, তুমি ও কলকাতা – অরুণাশিস সােম

সারাকাল বৃষ্টি – সুনীতি দেবনাথ

পরিত্যক্ত বিকেলে একটি ঝাঁক বৃষ্টি
হুড়মুড় করে ঝাঁপিয়ে পড়লো এসে।
সাত তাড়াতাড়ি গোধূলি রঙবাহার
পাহাড়ি আলখাল্লায় লুকিয়ে পড়লো,
পাহাড় জবুথবু যেন জানে না কিছু।
এবার বৃষ্টি কেবল বৃষ্টি ঝমাঝম —Read More »সারাকাল বৃষ্টি – সুনীতি দেবনাথ

বৃষ্টি সোনা তোকে – রুদ্র গোস্বামী

বৃষ্টি বৃষ্টি
জলে জলে জোনাকি
আমি সুখ যার মনে
তার নাম জানো কী ?

মেঘ মেঘ চুল তার
অভ্রের গয়না
নদী পাতা জল চোখ
ফুলসাজ আয়না।
Read More »বৃষ্টি সোনা তোকে – রুদ্র গোস্বামী

আমাকে ক্ষমা কোরো না চে – প্রদীপ বালা

চে তোমার জন্মদিনে একরাশ বৃষ্টি
সে বৃষ্টিতে আমি ঠিক ভিজতে পারিনি
তার বদলে বৃষ্টি বাঁচিয়ে তোমার স্টাইলে
সিগারেট ফুঁকতে চেয়েছি অবিরত
আর দেখে গেছি সেই ঝুম বৃষ্টিতে
ধানক্ষেতে বিপ্লব ঘটাচ্ছে একদল কৃষক
Read More »আমাকে ক্ষমা কোরো না চে – প্রদীপ বালা

আমার শহরঃ যে বৃষ্টির অপেক্ষায় বসে – প্রদীপ বালা

হটাৎ করেই ভাবতে বসি
মুষল ধারে বৃষ্টি হবে
শুকিয়ে যাওয়া আমার শহর
আবার বসে ভিজবে কবে
Read More »আমার শহরঃ যে বৃষ্টির অপেক্ষায় বসে – প্রদীপ বালা

বর্ষার চিঠি – শ্রীজাত

সোনা, তোমায় সাহস করে লিখছি। জানি বকবে
প্রিপারেশন হয়নি কিচ্ছু। বসছি না পার্ট টুতে
মাথার মধ্যে হাজারখানেক লাইন ঘুরছে, লাইন
এক্ষুনি খুব ইচ্ছে করছে তোমার সঙ্গে শুতেRead More »বর্ষার চিঠি – শ্রীজাত

আমার শহরঃ বৃষ্টিমানুষ – প্রদীপ বালা

মেঘ জমেছে তোরই বাড়ির ছাদের ওপর
এদিক ওদিক একটা দুটো বৃষ্টিমানুষ
একটু পরেই ভিজবে বসে আমার শহর
ভাসছে হাওয়ায় ইচ্ছে যত ফালতু ফানুসRead More »আমার শহরঃ বৃষ্টিমানুষ – প্রদীপ বালা

মেঘবালিকার জন্য রূপকথা — জয় গোস্বামী

আমি যখন ছোট ছিলাম
খেলতে যেতাম মেঘের দলে
একদিন এক মেঘবালিকা
প্রশ্ন করলো কৌতুহলে

“এই ছেলেটা, Read More »মেঘবালিকার জন্য রূপকথা — জয় গোস্বামী

একটি বৃষ্টির জন্য – প্রদীপ বালা

আমি তার আসার জন্য কখনই প্রস্তুত থাকতাম না
তবুও সে আসতো, আকাশ কালো করে
সোঁ সোঁ শব্দ করতে করতে তেড়ে আসতো, আর
তীরের ফলার মতো বিঁধতে চাইত শরীরে
কানে সুড়সুড়ি দিত……Read More »একটি বৃষ্টির জন্য – প্রদীপ বালা

বৃষ্টি ও মেয়েটি – বৈশালী চ্যাটার্জী

ঘনিয়ে এল যখন মেঘের মায়া
ডাকল আকাশ শীতল স্পর্শ করে
ঠিক তখনই এই গল্পের শুরু
ঠিক তখনই মন টেঁকে না ঘরেRead More »বৃষ্টি ও মেয়েটি – বৈশালী চ্যাটার্জী