প্রথম পাতা প্রচ্ছদ

সোমনাথ রায় – ঈশ্বরের হাত

আমার গলাটা টিপে টিপে জন্ম দাও, আমাকে বাঁচিয়ে রাখে টেপা আর টেপার মাঝখানে যে বিরতি, সেখানেই জন্মান্তর সাঁকো গলাটা টিপলেই চোখে অন্ধকার দেখি বেমানান, নিজেকে দুয়ো দিই নিজে...

বর্ষা দিনে – উদয় দেবনাথ

ঠোঁট তার শব্দ বিমুখ । চোখে কী ভীষণ প্লাবন। মনে এঁকে ঘৃণার হিসেব, তুমি তাকে জীবন ভাবছে ।। এই নিয়ে জ্বলুক আগুন। স্নেহ হােক পাথর ক্ষণিক। তুমি...

আকাশ-বার্তা – নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী

শুভ সংবাদ লোক মারফত আসবে ভেবে সন্ধ্যা রাত থেকে হাত দুখানা মাথার পিছনে রেখে এতক্ষণ তুমি। স্তব্ধ হয়ে বসে ছিলেন, এবারে। দরজায় টোকা পড়তেই সেই মানুষটি ঘর ছেড়ে। বারান্দায় বেরিয়ে আসেন।...

প্রেমিকার জন্য – অনুব্রতা গুপ্ত

ভুল করে সব আঙুল খোয়াই, ভুল করে পাই আলগা জনম । ইচ্ছে করে, ভুল করে ছুঁই, ভুলের গায়ে লাগাই মলম । প্রেমের দোহাই সত্যি বলি, ইচ্ছে করে অসভ্যতা, ভুল বাহানায়...

ভালোবাসা থেকে দূরে – অনুব্রতা গুপ্ত

মানুষ ভীষণ কাছে আসে, জড়িয়ে ধরে মৃতের লাশ, মুখ ঢেকে নিই বিজ্ঞাপনে, রুক্ষতাতে মনের শ্বাস। এখন আগুন সামলে চলি, হাওয়ার ভেতর তন্বী মাস, দূরত্বে ভালো আছি, পা বাঁচিয়ে উল্টো পাশ । জ্বরের...

বৃষ্টি, তুমি ও কলকাতা – অরুণাশিস সােম

তোমার ভেতর এক হাঁটু জল জমা, হাঁটছি আমি, সঙ্গে নিয়ে ছাতা, ঝগড়া শেষে ঠোটই বলে ক্ষমা, বৃষ্টি হলে এটাই কলকাতা। আমার কাছে কম সময়ের রেশ, অল্প হলেও প্রেমের কথা...

মিথ্যাবাদী, তোকে ভালোবাসি – লুৎফর হাসান

তুমি তােমার টুকরাে টুকরাে মিথ্যে কথা। আমার কবরের ঘাসের সাথে রেখে এসে, দেখবে সেসব নয়নতারা ফুল হয়ে ফুটতে শুরু করেছে। তুমি তােমার বড় বড় মিথ্যে কথা আমার কবরের কোনায়...

ঈশ্বর-১ – নিত্যানন্দ দত্ত

যে গাছ সঙ্গীহীন বিষণ্ণ মানুষের মতো একা ধূসর শূন্য তার অকৃপণ ছায়ার এলাকা। সে ছায়ায় ঘর বাঁধে আশ্রিত পাখি পরিবার শুধু তার বন্ধলে ব্যথাদাগ, অপমানভার রেখে গেছেন, দূরগামী...

তাঁবু – তুষার কবির

ওখানে পড়ে আছে যে ঘুমের ঘুঙুর; মদ মোহ প্রেম কাম ও মধু যারা শুধু চাইছে কেবলি আজ ডুবে যেতে। অভ্র, ভায়োলিন আর ভ্রমরের স্বরে তাদের আস্তিনে দেখো জমে...

বিরহ – বিক্রম ঘোষ

যতটুকু ভালোবাসা রেখেছি বাকি, যদি পারো অবশেষে ফিরিয়ে দিয়ো আমায়। শেষ নক্ষত্রের রাত। শব্দশূন্য আঁধার আসে কোন তারা নেই, জেগে থাকবে অনন্ত আকাশে কিছু তারা বাঁচে আমার মতো...

নদী – বিক্রম ঘোষ

তোমার চোখে নদী দেখেছি নিশ্চুপ কত বিরহে, আলোর অভিমানে, মাখিয়ে জল চাঁদের গায়ে । শব্দ নেই, সমস্ত শব্দ গেছে নিশ্চুপ ব্রত পালনে। ভিনদেশী জোনাকি আলো দিয়ে ঝিনুক...

আজ – স্মরণজিৎ চক্রবর্তী

সারাদিন আজ বৃষ্টি আসুক পাখি ভেজা গাছেদের ডানায় বসুক ঘুম আমিও নাহয় তোমার দু চোখে রাখি মেঘ জমা কোনও পাহাড়ের মরসুম তুমিও কোথাও আলো ছায়া বেঁচে থাকো মেঘ পিঠে...

নৌকা – স্মরণজিৎ চক্রবর্তী

কে যেন আজ ডাকল তোমায় অন্ধকারে জলের অতীত স্পর্শ কি আর সবাই পারে? রূপকথাটির দৈত্য ছিল বক্ষ জুড়ে এক পৃথিবী যেমন করে সূর্য ঘুরে আমার থেকে পৌঁছতে চায়...

পুজো – স্মরণজিৎ চক্রবর্তী

আমার যা কিছু, আজ শেষ হয়ে এল অন্ধের থেকে জোৎস্নাকে ধার করি কোথায় কে যেন উঁচু করে টিপ পরে! মাথা নিচু করে সময় পেরোয় ঘড়ি আকাশে আবার পুজোর...

দশমী – স্মরণজিৎ চক্রবর্তী

আকাশ থেকে ঝরে পড়ছে একলা কিছু চোখের জল এই শহরে কাদের বাড়ি কোন মানুষের আবাসস্থল? এত্তো ভীড়ে একলা কারা ঘুম-বালিশে কীসের দাগ? স্বপ্ন-জোড়া অন্ধকারে কোথায় হারাও সেই চিরাগ? হাসির নীচে লুকিয়ে ছিল শীতল,...

আকাশপ্রদীপ – স্মরণজিৎ চক্রবর্তী

আলোর শহর চমকে উঠল অন্ধকারে আসতে আসতে বৃদ্ধ হল গাছের পাতা জং ধরা ট্রাম কোথায় যেন আনমনা আজ হারিয়ে গেল তোমার দেওয়া অঙ্ক খাতা তুমিও কোথাও হারিয়ে গেছ,...

ঝাঁপ – স্মরণজিৎ চক্রবর্তী

বহুদূরে যেন কুয়াশা পড়েছে আজ মাফলার এসে জড়িয়ে ধরেছে ঘুম কলকাতা জুড়ে বৃষ্টি নামবে ঠিক তোমার মনেও বকুলের মরশুম সেই দেখে আমি ঝড় জলে একাকার মানি ব্যাগে রাখি কুচি...

ড্রইং – স্মরণজিৎ চক্রবর্তী

এই এখানে মাঠ বসালো ওই ওখানে নদী গাছের নীচে বসিয়ে দিল ক্লান্ত রাখাল ছেলে মেঘ বসালো ওপর দিকে নীচের দিকে বাড়ি পুজোর মুখে এই বাড়িতে তোমরা যারা...

অষ্টম – স্মরণজিৎ চক্রবর্তী

মাথার ওপর চাঁদ ভেঙেছে ওর জোৎস্না-গুঁড়ো ছড়িয়ে আছে ওই দল বেঁধে সব তোমার কাছে আসি আমরা যারা নবম শ্রেণী হই আমরা যারা আর আসে না ঘুম গন্ধ রাবার আর...

শেষ – স্মরণজিৎ চক্রবর্তী

বছর শেষের অ্যালবামে চৈত্র এসে আজ থামে ছোট্ট শহর, ঘুম-বাড়ি বুকের তলায় রেলগাড়ি ঝড় না ওঠা এক বছর তোমায় মনে নেই তো ওর একলা দুপুর দোকলা ট্রাম আমিও তো ঠিক তাই...