কলকাতার কবিতা

গঙ্গা আমার মা – অমিতাভ দাশগুপ্ত

কবি আজকাল ভোরবেলা ওঠে
বাগবাজারের গঙ্গার ঘাঁটে যায়
পাশে বাঁ হাতের মতো স্ত্রী
কবির সারা শরীরে সার সার পিনিশ সালতি নৌকো
লঞ্চের ছুঁচলো সিটি
সমুদ্রগামী জাহাজের সুগ্মভীর ডাকRead More »গঙ্গা আমার মা – অমিতাভ দাশগুপ্ত

কলকাতা – নবারুণ ভট্টাচার্য

নিয়নের বেশ্যাদের ফসফোরাস ছায়ার মধ্যে
আশ্চর্য ক্রেন ছিঁড়ে খাচ্ছে শহরের শিরা-উপশিরা
গল গল করে বয়ে যাচ্ছে, জমে থাকছে শহরের রক্ত
অলৌকিক ভিক্ষাপাত্রের মতো চাঁদ
দাঁতে কামড়ে ছুটে যাচ্ছের রাতের কুকুরRead More »কলকাতা – নবারুণ ভট্টাচার্য

আমার একটা মোটরগাড়ি চাই – নবারুণ ভট্টাচার্য

তিরিশ হাজার লোক ভাসছে
নোনা জলের ধাক্কায় তাদের নাক-মুখ দিয়ে রক্ত বেরোচ্ছে
সেই জন্যে আমার একটা মোটরগাড়ি চাই।
লোড শেডিং-এ গলে যাচ্ছে বরফ রেফ্রিজারেটরেRead More »আমার একটা মোটরগাড়ি চাই – নবারুণ ভট্টাচার্য

নিছক প্রেমের গল্প – সুদীপ্ত বন্দ্যোপাধ্যায়

দু’আনা তার দুঃখ ছিল।
চোদ্দো আনা সুখ
জানালাপারের গন্ধমাখা।
চম্পাবরণ মুখ
সেও যদি যায় ঝাপসা হয়ে
সমীকরণ স্পষ্ট
দু’আনা তার সুখ বাঁচে ‘আর
চোদ্দো আনা কষ্টRead More »নিছক প্রেমের গল্প – সুদীপ্ত বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রেমিক জনের চিঠি ২ – শ্রীজাত

ওই কথা কি এভাবে কেউ বলতে পারে?
হঠাৎ করে, সিড়ির বাঁকে, অন্ধকারে

নিশ্বাস নাক গন্ধ পোহায়, চনমিয়া…
ঘুপচি মতাে মুঠোর ভেতর একলা টিয়াRead More »প্রেমিক জনের চিঠি ২ – শ্রীজাত

যাদবপুরের মাঠ পেরিয়ে – শ্রীজাত

এমন বিকেল আসবে না আর কক্ষনও ঠিক।
যাদবপুরের মাঠ পেরিয়ে একখানা মেঘ।
যেমন তেমন একবিনুনি, হাওয়াই চটি…
তোমার পাড়ায় যখন আমার সন্ধে নামে।Read More »যাদবপুরের মাঠ পেরিয়ে – শ্রীজাত

প্রিয় চড়াই – শ্রীজাত

জাপটে ধরে বলব, ‘আমায় চাই?
বৃষ্টি তখন উল্টো ডাঙার মোড়ে
নরম গালে মাখিয়ে দেবো ছাই।
জানিস না তুই, পাখিরা রােজ ওড়ে?

ডানার ভাঁজে মুখ ঘষে, বেশ।
ভিড় করে সব দেখবে কেমন যা তা!
লজ্জা উধাও, ওড়না যখন শেষ…
এক মুহূর্ত থমকে কলকাতা।Read More »প্রিয় চড়াই – শ্রীজাত

বৃষ্টি, তুমি ও কলকাতা – অরুণাশিস সােম

তোমার ভেতর এক হাঁটু জল জমা,
হাঁটছি আমি, সঙ্গে নিয়ে ছাতা,
ঝগড়া শেষে ঠোটই বলে ক্ষমা,
বৃষ্টি হলে এটাই কলকাতা।Read More »বৃষ্টি, তুমি ও কলকাতা – অরুণাশিস সােম

ঝাঁপ – স্মরণজিৎ চক্রবর্তী

বহুদূরে যেন কুয়াশা পড়েছে আজ
মাফলার এসে জড়িয়ে ধরেছে ঘুম
কলকাতা জুড়ে বৃষ্টি নামবে ঠিক
তোমার মনেও বকুলের মরশুমRead More »ঝাঁপ – স্মরণজিৎ চক্রবর্তী

আমার শহরঃ বৃষ্টিমানুষ – প্রদীপ বালা

মেঘ জমেছে তোরই বাড়ির ছাদের ওপর
এদিক ওদিক একটা দুটো বৃষ্টিমানুষ
একটু পরেই ভিজবে বসে আমার শহর
ভাসছে হাওয়ায় ইচ্ছে যত ফালতু ফানুসRead More »আমার শহরঃ বৃষ্টিমানুষ – প্রদীপ বালা

অপেক্ষা – শ্রীজাত

ভ্রু পল্লবে ডাক দিয়েছ, বেশ।
আমার কিন্তু পুরনো অভ্যেস
মিনিট দশেক দেরীতে পৌঁছনো

তোমার ঘড়ি একটু জোরেই ছোটে
আস্তে করে কামড় দিচ্ছ ঠোঁটে
ঠোঁটের নীচে থমকে আছে ব্রণRead More »অপেক্ষা – শ্রীজাত

শেষ দিন: ২০০১ – শ্রীজাত

কোনওদিন তোকে বলাও হবে না জানি
আমি কোন-কোন সুড়ঙ্গে বেঁচে থাকি
কপ্টার থেকে ত্রাণের বদলে কারা
বিষ ছুড়েছিল… কলেজে-পালানো পাখি—Read More »শেষ দিন: ২০০১ – শ্রীজাত

আমার শহরঃ বসন্তের প্রেম – প্রদীপ বালা

বসন্ত তবে এসেই গেল, বুঝলে ভায়া!
একটা কুকুর শুঁকছে আমার পায়ের ধুলো
চমকে উঠে পেছনে দেখি, কি বেহায়া!
আমার হাতে আধখানা রোল, ঝুলছে নুলো
Read More »আমার শহরঃ বসন্তের প্রেম – প্রদীপ বালা

আমার শহরঃ একটা ককটেল ফ্যামিলি – প্রদীপ বালা

সময়ের শেষ হয় এইখানেই
আবার টান টেনে টেনে লম্বা করি
ধিরে ধিরে ছড়িয়ে যাক সবখানেই

###

সকাল সকাল চায়ের কাপে জোর চুমুক
কাল রাতের সাড়ে তিন মিনিট, চায়ের ভেতর
মিষ্টি কম, বলছে কানে ফিসফিসিয়ে
তুই কামুক !Read More »আমার শহরঃ একটা ককটেল ফ্যামিলি – প্রদীপ বালা