হে পথিক – হিমেল কবি নুরইসলাম নুর

0
49

সুদীর্ঘ পথ হেরি,খর রদ্দুর করোটিতে
আজি,পড়ন্ত বিকেলে-
আমি বর ক্লান্ত,হে পথিক!
বহু পথ বাকি,বহু দুরে যাবো,ঠিক
লো দীঘির ওপারে।

অথচ,স্বপ্নিল দুচোখ ‘দেখো’
অন্তিম মগ্নতায়,
আড়ালে,সুর্যদেব হাসে!

খর রদ্দুরে;জলজ বাতাস
অদুরে দীঘির কালো জল,
ঘোনো কালো আঁধার,আসিছে
ঘোনায়ে,হে দুরন্ত পথিক!
হও আগুয়ান,দুর্মর।

খানিকটা বাকি-
দেবে নিশাপতি জ্বালি;
ভৈরব প্রভাতি।
আলোর দিশায়;জোনাকির
মেলা,ভুলে যাবে..
কবি মন।

পিছু পথ নাহি চাহি
বেগে ধাও-
হে পথিক,
হে কবি!
নিশার স্বপ্নিল ধ্রুব তারা।

নিরাক পরা এ গায়ের ওপারে
মোর কুড়েঘরে-
চির নিরবধি,হেন
শিশিরেরো নিরবতা।

Nurislam Nur
আমি হিমেল(সাহিত্যে ব্যাবহারের জন্য)।গনিত,ইংরেজি আর বিঙ্গানের মতো কঠোরোতার মাঝেই,জন্ম হয় আমার সাহিত্য চর্চার এক অতৃপ্ত অনুরাগ।আর অজান্তেই রচনা করে ফেলি;প্রেম,হাসি-কান্না,বিরহের এক বিশাল সম্রাজ্য।যার সিংহ ভাগই মানব-প্রেমের এক চিরায়ত উপখ্যান।আর তার সুচ সমতল ভাগে,ফুটে উঠেছে,মানব মাঝারে থাকা চির নিদ্রায়িত এক হিংস্র দানবের হুংকার। এ পর্যন্ত আমার রচিত: গল্পগ্রন্থ:পৌরাণিক সাহিত্যে পদাচরন,আমি অনিয়ম,বিদিশা,ডেকে হলো সারা,নিরাক পরা গ্রাম। কাব্য গ্রণ্থ:হিমেল ও শীথিল সাহিত্য সমগ্র,আমার কিছু কবিতা,প্রেম নিবাশ,দুপুর দগ্ধ পায়ে। বিঙ্গান ভিত্তিক গ্রন্থ:অমীমাংসিত সুত্রাবলী,রহস্য। নাটক:নীলিমা। উপন্যাস:শেশ কবে। প্রবন্ধ:মাণব শাস্ত্র,লেলিহান পথ। তাছারা রয়েছে কিছু অগোছালো কবিতা আর অসমাপ্ত কয়েকখানা গ্রন্থ। বোধ করি,নিয়তই গ্রন্থের নাম উল্লেখ্য পুর্বক লেখা গুলি "কবিতা ককটেল"পাতায় শেয়ার করবো। ...........আপনিও আপনাকে তুলে ধরুন,হয়তো বা আপনার মাঝেই লুকিয়ে আছে সে সুপ্ত প্রতিভা।নিশ্চয় এতে দেশ,জাতি এবং আপনার মঙ্গল রয়েছে।