অমৃত প্রেম — নীল অঞ্জন

0
15

একটি সম্পূর্ণ জীবন, চিতা-ভস্ম গায়ে মেখে
কালিন্দী নদীর মতো শ্মশানে গড়ালে,
চারিদিকে ছি, ছি, কলঙ্ক রটে যাবে তোমার!
অতুল সুখও ঠিক কাঁটা হয়ে বিধে রবে
কিছু তো চাইনি আমি কখনো তোমার কাছে,
একমাত্র সবুজ যাকিছু, ভালবাসা ছাড়া!
ওটুকুই সামান্য দাবী আমার, প্রেমের দিব্বি
মেটালেই সুখ-স্রোতে ভেসে যাবো জলে,
পুড়ে যাবো কবিতায় তৃষিত হৃদয়ের আগুনে!

বেঁধে নেবো নিমিষে সেই বিবর্ণ সেতারের তার
সুনিপুণ হাতে গড়ে দেবো ঘরামির চাল,
মেঘের কাগজে লেখা নীলচিঠি এলে তোমার!
দু’হাতে ভালবাসা মেখে দুঃস্বপ্ন চৌচির
ভিজে প্রেম গচ্ছিত রেখে, ছড়াব ধানের বীজ,
কাটাবো উড়াল জীবন, যুগলবন্দী হাত!
অযুত স্বপ্নে নীল, উদাসী কালিন্দীর জল ছুঁয়ে
লিখে যাবো প্রেম, অঝোর কবিতা আমি
শোনাব অবিনাশী গান, জীবনে যা কিছু দামী!

যদি একবার ভালবাসা আসে, ভালবেসে তাকে
অপরাধ হয় হোক, দেখাবো হৃদয় খুলে,
তুলে দেবো কবোষ্ণ সুখ আর বেদনাসিক্ত দাগ!
কালের মৌনতা জুড়ে অমৃত প্রেম অবধি
তুমি এলে পাষাণী মেয়ে শুধু একবার পথ ভুলে,
গড়ে নেবো ধরায় স্বর্গ, চারু আনন্দলোক!
অনন্য আরণ্যিক ভোরে অন্ধকার জলপাইকুঞ্জে
কালো মেঘ নেমে এলে হৃদয়ে ও পাঁজরে,
না হয় পরীক্ষা নিও মেয়ে, এ প্রেম কতটা সত্যি!!