ভালবাসার কবিতা

তুমি যেখানেই যাও — সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়

তুমি যেখানেই যাও
আমি সঙ্গে আছি।
মন্দিরের পাশে তুমি শোনো নি নিঃশ্বাস?
লঘু মরালীর মতো হাওয়া উড়ে যায়
জ্যোৎস্না রাতে নক্ষত্রেরা স্থান বদলায়
ভ্রমণকারিণী হয়ে তুমি গেলে কার্শিয়াংRead More »তুমি যেখানেই যাও — সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়

ছন্দরীতি – মহাদেব সাহা

তোমাদের কথায় কথায় এতো ব্যকরণ
তোমাদের উঠতে বসতে এতো অভিধান,
কিন্তু চঞ্চল ঝর্ণার কোনো ব্যাকরণ নেই
আকাশের কোনো অভিধান নেই, সমুদ্রের নেই।
ভালোবাসা ব্যাকরণ মানে না কখনোRead More »ছন্দরীতি – মহাদেব সাহা

কে চায় তোমাকে পেলে – মহাদেব সাহা

বলো না তোমাকে পেলে কোন মূর্খ অর্থ-পদ চায়
বলো কে চায় তোমাকে ফেলে স্বর্ণসিংহাসন
জয়ের শিরোপা আর খ্যাতির সম্মান,
কে চায় সোনার খনি তোমার বুকের এই স্বর্ণচাঁপা পেলে?
তোমার স্বীকৃতি পেলে কে চায় মঞ্চের মালা
কে চায় তাহলে আর মানপত্র তোমার হাতের চিঠি পেলে,Read More »কে চায় তোমাকে পেলে – মহাদেব সাহা

কাছে আসো, সম্মুখে দাঁড়াও – মহাদেব সাহা

কাছে আসো, সম্মুখে দাঁড়াও
খুব কাছে, যতোখানি কাছে আসা যায়,
আমি আপাদমস্তক দেখি তোমার শরীর
যেখাবে মানুষ দেখে, প্রথম মানুষ।
দেখি এই কাণ্ড আর ডালপালাখানি, ভিতর-বাহির
কতোটা পেয়েছে মাটি, কতোটা বা এই জলবায়ুRead More »কাছে আসো, সম্মুখে দাঁড়াও – মহাদেব সাহা

কবিতা বাঁচে ভালোবাসায় – মহাদেব সাহা

তোমার কাছে আমি যে কবিতা শুনেছি
এখন পর্যন্ত তা-ই আমার কাছে কবিতার সার্থক আবৃত্তি;
যদিও তুমি কোনো ভালো আবৃত্তিকার নও, মঞ্চেও
তোমাকে কেউ কখনো দেখেনি,
তোমার কণ্ঠস্বরও এমন কিছু অসাধারণ নয়
বরং তুমি অনেক সাধারণ শব্দই হয়তো এখনো ভুল উচ্চারণ করোRead More »কবিতা বাঁচে ভালোবাসায় – মহাদেব সাহা

একবার ভালোবেসে দেখো – মহাদেব সাহা

তুমি যদি আমাকে না ভালোবাসো আর
এই মুখে কবিতা ফুটবে না,
এই কণ্ঠ আবৃতি করবে না কোনো প্রিয় পঙ্‌ক্তিমালা
তাহলে শুকিয়ে যাবে সব আবেগের নদী।
আমি আর পারবো না লিখতে তাহলে
অনবদ্য একটি চরণ, একটিও ইমেজ হবে না রচিত,Read More »একবার ভালোবেসে দেখো – মহাদেব সাহা

আর কোনোদিন হইনি এমন মর্মাহত – মহাদেব সাহা

এর আগে আর কোনোদিন আমি
হইনি এমন মর্মাহত
যেদিন তোমার চোখে প্রথম দেখেছি আমি জল,
অকস্মাৎ মনে হলো নিভে গেলো সব পৃথিবীর আলো
গোলাপবাগান সব হয়ে গেলো রুক্ষ কাঁটাবন।
সত্যি এর আগে আর কোনোদিন আমি
মর্মাহত হইনি এমনRead More »আর কোনোদিন হইনি এমন মর্মাহত – মহাদেব সাহা

একা – বীথি চট্টোপাধ্যায়

আমার চোখে বসন্ত দারুণ চৈত্রমাস
চতুর্দিকে শিমূল-পলাশ কৃষ্ণচূড়ার ত্রাস।

ঝড় উঠেছে নিখুঁত কালো বৃষ্টি ভেজা রাত
আঁচল দিয়ে দুঃখ ঢাকি কোথায় তোমার হাত ?Read More »একা – বীথি চট্টোপাধ্যায়

এলোমেলো প্রেম – মাহ্ফুজ রাজন

( ১ )
আকাঙ্ক্ষার ঝুল বারান্দায়
যখন দেখা হয় রোজ,
মেয়েটি হয়ে যায় কিশোরী
আর ছেলেটি
চল্লিশ বছরের কিশোর।।Read More »এলোমেলো প্রেম – মাহ্ফুজ রাজন

স্মৃতি রোমন্থন – মাহ্ফুজ রাজন

মনে পড়ে
সূর্যাস্তের এক বিকেল বেলায়
একজোড়া হাত আমায় ছুঁয়ে বলেছিল,
ভুলে যাবেনাতো ?
আমি মৃদু হেসে বলেছিলাম,
ভালো যে বাসেনা সে তো
চোখের তারায় সন্ধেহের ছবি আঁকবেই।
অমনি তুমি
গোমড়া মুখে পেছন ফিরেছিলে।
কারণ, তুমি জানতেRead More »স্মৃতি রোমন্থন – মাহ্ফুজ রাজন

তোমাকে ভুলতে চেয়ে আরো বেশী ভালোবেসে ফেলি – মহাদেব সাহা

তোমাকে ভুলতে চেয়ে আরো বেশি
ভালোবেসে ফেলি
তোমাকে ছাড়াতে গিয়ে আরো
বেশি গভীরে জড়াই,
যতোই তোমাকে ছেড়ে যেতে চাই
দূরে
ততোই তোমার হাতে বন্দি হয়ে পড়ি,
তোমাকে এড়াতে গেলে এভাবেই
আষ্টেপৃষ্ঠে বাঁধা পড়ে যাইRead More »তোমাকে ভুলতে চেয়ে আরো বেশী ভালোবেসে ফেলি – মহাদেব সাহা

মেঘবালিকার জন্য রূপকথা — জয় গোস্বামী

আমি যখন ছোট ছিলাম
খেলতে যেতাম মেঘের দলে
একদিন এক মেঘবালিকা
প্রশ্ন করলো কৌতুহলে

“এই ছেলেটা, Read More »মেঘবালিকার জন্য রূপকথা — জয় গোস্বামী

মেঘ বলতে আপত্তি কি ? – জয় গোস্বামী

.         মেঘ বলতে আপত্তি কি ?
.           বেশ, বলতে পরি
.        ছাদের ওপর মেঘ দাঁড়াতো
.           ফুলপিসিমার বাড়ি
.          গ্রীষ্ম ছুটি চলছে তখন
.          তখন মানে ? কবে ?
আমার যদি চোদ্দো, মেঘের ষোলো-সতেরো হবে
.          ছাদের থেকে হাতছানি দিতো
.          ক্যারাম খেলবি ? … আয় …
.   সারা দুপুর কাহাঁতক আর ক্যারম খেলা যায়
.           সেই জন্যেই জোচ্চুরি হয়
.             হ্যাঁ, জোচ্চুরি হতো
আমার যদি চোদ্দো, মেঘের পনেরো-ষোলো মত।

Read More »মেঘ বলতে আপত্তি কি ? – জয় গোস্বামী

পাগলি তোমার সঙ্গে

পাগলী, তোমার সঙ্গে… – জয় গোস্বামী

পাগলী, তোমার সঙ্গে ভয়াবহ জীবন কাটাব
পাগলী, তোমার সঙ্গে ধুলোবালি কাটাব জীবন
এর চোখে ধাঁধা করব, ওর জল করে দেব কাদা
পাগলী, তোমার সঙ্গে ঢেউ খেলতে যাব দু’কদম।Read More »পাগলী, তোমার সঙ্গে… – জয় গোস্বামী