নারীবাদী কবিতা

নারীমেধ – অমিতাভ দাশগুপ্ত

এক

‘মেয়েমানুষের মাংস এমনিতেই খেতে খুব স্বাদু,
আর যদি দিশি মদে ভিজিয়ে ভিজিয়ে
হায় হায় ভাবাই যায় না…..
তাছাড়া এখন খুব পড়েছে মরশুম,Read More »নারীমেধ – অমিতাভ দাশগুপ্ত

অভিশাপ – বীথি চট্টোপাধ্যায়

স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে যেই বউকে বুকে জড়িয়ে ধরবে
তখন তোমার ভীষণভাবে আমার কথাই মনে পড়বে।
আমার বুকের কলহাস্য এবং নিছক বুকের স্পর্শ—
আমার রূপের টুকরো টুকরো অনুষঙ্গ,
হাতের নরম আঙুলগুলো তোমার চুলে খেলা করবে।Read More »অভিশাপ – বীথি চট্টোপাধ্যায়

নারীর জন্য পংক্তিমালা (২) — মাহ্ফুজ রাজন

ও মেয়ে, তুমি অমন কাঁদো কেন ?
রচনা করো কেন অমন
দুঃখী নিঃশব্দের কবিতা ?
তোমার একেকটি কান্নার মুহূর্ত
বিষন্ন করে তোলে চারধার ,
প্রকৃতির বেহালায় বাজে যেন
দূর অতীতের কষ্টের সুর।Read More »নারীর জন্য পংক্তিমালা (২) — মাহ্ফুজ রাজন

নারীর জন্য পংক্তিমালা (১) — মাহফুজ রাজন

একটি নারী –
হতে পারে সে স্মৃতিকণা, সীমা
জোস্না অথবা অরুণিমা,
কীইবা যায় আসে তাতে,
নারী সে, কেবলি নারী।
জল্লাদ বাহিনীর পদচারনা
যার চতুর্দিক ঘিরে Read More »নারীর জন্য পংক্তিমালা (১) — মাহফুজ রাজন

একলা চলা – জয়া গুহ (তিস্তা)

কিছু টা পথ একলা চলতে হয়
ছোট্ট বেলায় এক্কা-দোক্কায়
কিছু রাখা ছিল শিউলিতলায়
কুলের আচার, পুতুল খেলায়
তারপরে মেয়ে ছাদনা তলা-
ভাতের হাঁড়ি, উনুন -কড়া
আর তাছাড়া?
পুকুর পাড়ে বাজছে নূপুর Read More »একলা চলা – জয়া গুহ (তিস্তা)

আরামের মেয়ে – জয়া গুহ (তিস্তা)

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জাপানী সেনাদের ‘কমফর্ট’ এর জন্য লক্ষ লক্ষ কোরিয়ান মেয়েদের যৌনদাসী করে পাঠানো হয়েছিল।তাদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে লেখা।

বেহুলা সতীর ভেলায় উঠেছে
লখীন্দরের লাশ
সীতার চিতায় জ্বলছে আগুন
পোড়েনি এখনো আশ
নারী মাতা হল,কন্যা,দয়িতা
নারী আরামের মেয়েRead More »আরামের মেয়ে – জয়া গুহ (তিস্তা)

একটি ভ্রূণের আত্মকথা – জয়া গুহ (তিস্তা)

নারী পুরুষ ভালোবাসায়
ফুলের কুঁড়ি শিশু
অদেখা এই আলোর কণা
ভবিষ্যতের যীশু

সবেই আমি ছোট্ট কুঁড়ি
সবেই তুমি ‘মা’
আগামীর সম্ভাষণে
একটি মাসে পাRead More »একটি ভ্রূণের আত্মকথা – জয়া গুহ (তিস্তা)

মেয়েটা – মোনালিসা

ও মেয়ে, কে বলে গো নষ্ট তুমি?
যারা বলে নষ্ট তুমি,
তারা ঠিক তেমন-
আমাদের টিয়া পাখি যেমন।
আমাদের টিয়া পাখি- টুসি,
কথা শেখাই তাকে যেমন খুশি।Read More »মেয়েটা – মোনালিসা

ধর্মাবতার – সৃজা ঘোষ

এক

অভ্যেসের আর বয়স কত? ধর্ষণের ও তাই
বাসের ভেতর, ঘরের ভেতর নষ্ট বনে যাই।
“আঠেরো চাই, আঠেরো চাই”, রডের ভেতর মেয়ে-
ধর্মাবতার, মেয়েমানুষ সস্তা ‘ষোলো’-র চেয়ে…Read More »ধর্মাবতার – সৃজা ঘোষ

হাত – তসলিমা নাসরিন

আবার আমি তোমার হাতে রাখবো বলে হাত
গুছিয়ে নিয়ে জীবনখানি উজান ডিঙি বেয়ে
এসেছি সেই উঠোনটিতে গভীর করে রাত
দেখছ না কি চাঁদের নীচে দাঁড়িয়ে কাঁদি দুঃখবতী মেয়ে !
আঙুলগুলো কাঁপছে দেখ, হাত বাড়াবে কখন ?Read More »হাত – তসলিমা নাসরিন

দুঃখপোষা মেয়ে – তসলিমা নাসরিন

কান্না রেখে একটুখানি বস
দুঃখ-ঝোলা একেক করে খোল…
দেখাও তোমার গোপন ক্ষতগুলো
এ ক’দিনে গভীর কতো হল।
ও মেয়ে, শুনছ !
বাইরে খানিক মেলে দাও তো এসবRead More »দুঃখপোষা মেয়ে – তসলিমা নাসরিন

চরিত্র – তসলিমা নাসরিন

তুমি মেয়ে,
তুমি খুব ভাল করে মনে রেখো
তুমি যখন ঘরের চৌকাঠ ডিঙোবে
লোকে তোমাকে আড়চোখে দেখবে।
তুমি যখন গলি ধরে হাঁটতে থাকবে
লোকে তোমার পিছু নেবে, শিস দেবে।Read More »চরিত্র – তসলিমা নাসরিন

কযেকটি স্বপ্ন – জারিফা জাহান

১)

একটা সুন্দর হলদে সকাল | ছোট্ট টিপ,হাল্কা কাজল আর চুলটা বেঁধে বেরিয়েছি অফিস এর জন্য |
বাসে প্রচন্ড ভিড় |
কিনতু ভিড়ের মধ্যে কোনো কিলবিলে হাত নেই,নেই কোনো দুর্ভেদ্য নজরের কালকূট বিষ কিংবা বিকৃত কামুক মন্তব্য |Read More »কযেকটি স্বপ্ন – জারিফা জাহান

শুভম তোমাকে – মল্লিকা সেনগুপ্ত

শুভম তোমাকে অনেকদিন পরে
হটাত দেখেছি বইমেলার মাঠে
গতজন্মের স্মৃতির মতন
ভুলে যাওয়া গানের মতন
ঠিক সেই মুখ, ঠিক সেই ভুরুRead More »শুভম তোমাকে – মল্লিকা সেনগুপ্ত

টোপ -তসলিমা নাসরিন

যেরকম ছিলে, সেরকমই তুমি আছ
কেবল আমাকে মাঝপথে ডুবিয়েছ
স্বপ্নের জলে উলটো ভাসান এত
আমি ছাড়া আর ভাগ্যে জুটেছে কার!

Read More »টোপ -তসলিমা নাসরিন

আমার শহরঃ একটা ককটেল ফ্যামিলি – প্রদীপ বালা

সময়ের শেষ হয় এইখানেই
আবার টান টেনে টেনে লম্বা করি
ধিরে ধিরে ছড়িয়ে যাক সবখানেই

###

সকাল সকাল চায়ের কাপে জোর চুমুক
কাল রাতের সাড়ে তিন মিনিট, চায়ের ভেতর
মিষ্টি কম, বলছে কানে ফিসফিসিয়ে
তুই কামুক !Read More »আমার শহরঃ একটা ককটেল ফ্যামিলি – প্রদীপ বালা

একটা সন্তান দিতে পারিনি বলে, আমায় তুমি তালাক দিলে? – দয়াল দাস

একটা সন্তান দিতে পারিনি বলে
আমায় তুমি তালাক দিলে?
ঈশ্বরও আমায় সন্তান দেয় নি,
কই তাঁকে তো আমি তালাক দেই নি?Read More »একটা সন্তান দিতে পারিনি বলে, আমায় তুমি তালাক দিলে? – দয়াল দাস

গান্ধারীকে চিঠি — প্রদীপ বালা

শ্রীচরণেষু,
আমাকে আপনি চিনবেন না । হয়তো বা চিনবেন ।
আপনার অনেক পরে আমার জন্ম । তবু
আরও দশজনের মতো আমিও আপনার কথা জানি
জানি আপনার দুঃসাহসিক পতিব্রতা স্ত্রী হয়ে ওঠার কথা
আপনার গুণধর ছেলেদের কথা… আরও যা যা
জানা প্রয়োজন মোটামুটি সবই জানিRead More »গান্ধারীকে চিঠি — প্রদীপ বালা

পাঞ্চালীর চোখ চাই; পাঞ্চালীর চোখ — কৃষ্ণা দাস

ধীরে ধীরে তুলে নিলে গান্ডীব ধনুষ;
মাছের চোখে চোখ স্থির; স্থিতধী পুরুষ,
পাঞ্চালীর চোখ ঐ গভীর অতল,
ঘন কালো হরিণ চক্ষু তীব্র ‘ব্লাক হোল’।
একি মায়া!একি টান!দহন আলোক!
পাঞ্চালীর চোখ চাই; পাঞ্চালীর চোখ!Read More »পাঞ্চালীর চোখ চাই; পাঞ্চালীর চোখ — কৃষ্ণা দাস

নারীবাদ – পূরবী মণ্ডল

ছোটো থেকে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি দেখতে দেখতে

আজ এতটা বড়ো হয়ে গেলাম

অবহেলিত মায়ের সমাজ,লান্ছিত আজ

ও ছেলে তাই ঠাম্মার বেশি আদর সব কিছু মাপ

আমি মেয়ে সবেতেই মানাRead More »নারীবাদ – পূরবী মণ্ডল

ক্যাকটাস — ইন্দ্রাণী ভট্টাচার্য

দুবেনী ঝোলানো,এক্কা দোক্কা খেলতে খেলতে
বালিকা থেকে কিশোরী হওয়া মেয়েটি;
সোনালী স্বপ্ন মাখা চোখে,
প্রজাপতির পেছনে দৌড়নো মন নিয়েRead More »ক্যাকটাস — ইন্দ্রাণী ভট্টাচার্য

যেতে চাই – ঝিলিক চক্রবর্তী

একগুঁয়ে প্রতিবাদী হতে চাওয়া মেয়ে
শোনে এক অলৌকিক ডাক
“একা থাকতে কষ্ট হচ্ছে”—
হৃদপিণ্ডের রক্ত বিন্দু দ্রুতলয়ে নাচেRead More »যেতে চাই – ঝিলিক চক্রবর্তী

দেহতত্ত্ব – তসলিমা নাসরিন

এতকাল চেনা এই আমার শরীর
সময় সময় একে আমি নিজেই চিনি না।
একটি কর্কশ হাত
নানান কৌশল করে চন্দন চর্চ্চিত হাতখানি ছুঁলে
আমার স্নায়ুর ঘরে ঘণ্টি বাজে, ঘণ্টি বাজেRead More »দেহতত্ত্ব – তসলিমা নাসরিন

ভুল প্রেমে কেটে গেছে তিরিশ বসন্ত – তসলিমা নাসরিন

ভুল প্রেমে কেটে গেছে তিরিশ বসন্ত, তবু
এখনো কেমন যেন হৃদয় টাটায়-
প্রতারক পুরুষেরা এখনো আঙুল ছুঁলে
পাথর শরীর বয়ে ঝরনার জল ঝরে।
এখনো কেমন যেন কল কল শব্দ শুনি
নির্জন বৈশাখে, মাঘ-চৈত্রে-Read More »ভুল প্রেমে কেটে গেছে তিরিশ বসন্ত – তসলিমা নাসরিন

আমরা দ্রৌপদী নতুন শতাব্দীর – প্রদীপ বালা

এই দেখুন আমরা
আপনাদের সামনে দাঁড়িয়ে

মুখ ফিরিয়ে নেবেন না হে ভদ্রমহোদয়গণ
তাকিয়ে থাকুন
আজ দেখব আপনাদের পৌরুষত্বRead More »আমরা দ্রৌপদী নতুন শতাব্দীর – প্রদীপ বালা

আমিই সেই মেয়ে – শুভ দাশগুপ্ত

আমিই সেই মেয়ে।
বাসে ট্রেনে রাস্তায় আপনি যাকে রোজ দেখেন
যার শাড়ি, কপালের টিপ কানের দুল আর পায়ের গোড়ালি
আপনি রোজ দেখেন।
আর
আরও অনেক কিছু দেখতে পাবার স্বপ্ন দেখেন।
স্বপ্নে যাকে ইচ্ছে মতন দেখেন।
আমিই সেই মেয়ে।Read More »আমিই সেই মেয়ে – শুভ দাশগুপ্ত

শাড়ি – সুবোধ সরকার

বিয়েতে একান্নটা শাড়ি পেয়েছিল মেয়েটা
অষ্টমঙ্গলায় ফিরে এসে আরো ছটা
এতো শাড়ি একসঙ্গে সে জীবনে দেখেনি।

আলমারির প্রথম থাকে সে রাখলো সব নীল শাড়িদের
হালকা নীল একটা কে জড়িয়ে ধরে বলল, তুই আমার আকাশRead More »শাড়ি – সুবোধ সরকার