Home / কবিতা

কবিতা

বাঁশপাতার ঘর

বাঁশপাতার ঘর আব্দুল মান্নান মল্লিক শব্দগুলো হারিয়ে গেছে অশ্রুজলে ভেসে, ছন্দ যত সুর হারিয়ে ক্রন্দন অবশেষে। পথের শুরু শৈশবকালের আশা ছিল যত, সবই মিথ্যা পথের শেষে দুঃখ অবিরত। শব্দগুলো সাজাতে যেই স্তব্ধ কলম হাতে, মনে পড়ে তাদের কথা ছিল যারা সাথে । সঙ্গীসাথী ছিল যারা কেউবা আছে নাই, মায়ার বাঁধন ...

Read More »

চ্যুতি

চ্যুতি আব্দুল মান্নান মল্লিক যেদিন তোমার বক্ষ ছাড়ি হলাম অধোগামী, প্রাতের রবি হেসেছিল কেঁদেছিলাম আমি। ক্ষণিক সুখের স্বপ্নঘোরে নিরব যখন হাসি, চমকে দেখি কোথায় আমি অসহায় প্রবাসী। যখন যেটা চাইতাম কাছে ধরা দিত হাতে, নুরের বাতি দিবা-নিশি জ্বলত অবিরতে। গুলবাগিচায় খেলার আসর মুখে শুধু হাসি, অজ্ঞাত কোন ভুলের বসে হলাম ...

Read More »

ফাগুনী নিশান

ফাগুনী নিশান আব্দুল মান্নান মল্লিক হৈ-হৈ-হৈ হৈ ফাগুন এলো ঐ, ফুল কুঁড়িতে জগত আলো পাখিদের হৈ-চৈ। ফাগুন হাওয়া মাতোয়ারা বুনো ফুলের গন্ধে, ভ্রমর ভ্রমরি সুর তুলেছে মৌ পাখিদের ছন্দে। পলাশ বনের শাখায় শাখায় রঙ ধরেছে ওই, ফাগুন মাসের ফুলের হাসি সৌরভ মধুময়। ঘুর্ণি বাতাস পথের পরে শুষ্ক পাতার গুঞ্জরন, মাধুরী ...

Read More »

গোলাপের বিনিময়ে লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী

গোলাপের বিনিময়ে লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী গোলাপ দিবস আজি জানে সর্বজনে, প্রেমের গোলাপ ফুটে হৃদয় কাননে। গোলাপের ভালবাসা ব্যর্থ নাহি হয়, ভালবাসা করে জয়, সবার হৃদয়। গোলাপের বিনিময়ে প্রীতির বন্ধন, শুভেচ্ছার বিনিময়ে প্রফুল্লিত মন। ভালবেসে কর যদি গোলাপ প্রদান, দিনে দিনে বৃদ্ধি হয়, অর্থ যশ মান। করিলে গোলাপ দান ভালবাসা হয়, মিলেমিশে ...

Read More »

বিরহী কবির ব্যথা

বিরহী কবির ব্যথা লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী লেখনী আমার স্তব্ধ আজিকে কবিতায় কথা বলে, কবির হৃদয় সিক্ত আজিকে বেদনার অশ্রুজলে। জোছনাহারা আঁধার যামিনী জোনাকীর কান্নায়, দেখি না চাঁদ রাতের আকাশে মিটিমিটি তারা চায়। তন্দ্রা জড়ানো বিনিদ্র রজনী অসহ্য ব্যথায় জাগে, বিরহী কবির বিদীর্ণ হৃদয়ে দারুণ আঘাত লাগে। নির্জন রাত্রি বিরহী কবির ঘুম ...

Read More »

ম্রিয়মাণ – এবি রিয়াদ

পৃথিবীর সব জানালা আজ বন্ধ, দীর্ঘশ্বাসে নেমে আসে অনন্ত অন্ধকার। ফেকাসে হওয়া চাঁদের নিলিমা নিঃস্তেজ, নিঃসংগতায় নিঃস্তব্ধ। চিরচেনা মেঘগুলী চলেগেছে সেই কবেই, কাশফুল যেন আর শরতের অধিকারে নেই। দিগন্ত দূরে, খুজেফিরে দৃস্টির দ্যুতি, ম্রিয়মান হৃদয়ের জমাটবাধা সব সৃতি। পৃথিবীর সব জানালা আজ বন্ধ বিলীন হওয়ার বিষাদে ‘হাস্যজ্জল বসন্ত’। জীবনের আহবানে ...

Read More »

অশ্রু দিয়ে লেখা কবিতা

অশ্রু দিয়ে লেখা কবিতা লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী অন্ধ কানাই গান গেয়ে যায় হাট কবিতার পাতায়। অন্ধ জনক জননীরে হেরি রামায়ণে কাব্যগাথায়। অন্ধ মহারাজ ধৃতরাষ্ট্র যিনি জননী গান্ধারীর পতি, অন্ধ চৈতালী যাত্রাপালায় দৃষ্টিহীনা হলেও সতী। অন্ধ সমাজের অন্ধকারে কত কাঁদে অভাগিনী নারী, স্বজন-হারা স্বামী-পুত্র সংসার কভু কি ভুলতে পারি? না ফোটা ফুলের ...

Read More »

নদীর ধারে আমাদের গ্রাম লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী

নদীর ধারে আমাদের গ্রাম লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী অজয়ের ধারে সবুজের ছায়ে আছে ছোট এক গ্রাম, মাঝখানে তার আছে দিঘি এক তালদিঘি তার নাম। তালদিঘির পাড়েতে তার তাল-সুপারির গাছে গাছে, বাবুইপাখি উড়ে আসে সেথা বাসা বাঁধে আর নাচে। গ্রামসীমানায় পথের দুধারে হেরি সবুজ গাছের সারি, রাঙাপথ ধরে লাল ধূলো উড়ে ছুটে চলে ...

Read More »

পরীক্ষার পড়া লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী

মাগো আমার পরীক্ষার পড়া বল কবে শেষ হবে? পাড়ার সকল ছেলের সাথে খেলতে যাব মা কবে? ঐ দেখো মা পূবের আকাশে উঠেছে সোনার রবি, ফুলের বনে ফুলকলি ফোটে দেখি যে সুন্দর ছবি। সবুজ গাছে পাখিরা নাচে সারাদিন করে খেলা, পশ্চিমে রবি পড়েছে ঢলে পড়ে আসে যবে বেলা। সকালে বিকালে পড়েছি ...

Read More »

যুগপুরুষোত্তম যুগাবতার

যুগপুরুষোত্তম যুগাবতার লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী যুগ-পুরুষোত্তম তুমি যুগ অবতার, নমামি হে প্রভু আমি চরণে তোমার। তুমি রাম তুমি কৃষ্ণ তুমি প্রেমময়, পরম দয়াল তুমি, হে করুণাময়। জীবনে চলার পথে তুমি যে সহায়, বহু ভাগ্যফলে প্রভু পেয়েছি তোমায়। সত্যের শ্রীহরি তুমি ত্রেতাযুগে রাম, কলিযুগে হল তব. শ্রীঅনুকূল নাম। সত্দীক্ষা দিয়ে তুমি দেখাইলে ...

Read More »

শুভ জন্মদিন

এসো হে পঁচিশে জানুয়ারী! পুনর্বার, শুভবার্তা পৌঁছে দাও কর্ণে সবাকার। আজিকার দিনে মোর হইল জনম, কবিতায় লিখে কবি ভাণ্ডারী লক্ষ্মণ। শীতের কুয়াশা যত কাটুক এবার, পুলক জাগুক মনে আজি সবাকার। বসন্তের আগমনে কবি আজি কয়, মনে দাও সুখ শান্তি, সাহস দুর্জয়। পুলকিত ধরা আজি শুভ জন্মদিনে, আলোময় সারাবিশ্ব আঁধার বিহনে। ...

Read More »

আমার এক আমি— জুম যাহরিন নাজাহ

আজ অদ্ভূত এক অনুভূতি হচ্ছে, যা হয়নি বিগত মাস ছয়েক আগেও; শূন্যতাকে নূতন করে জানার আর নিজেকে নূতন করে চেনার, আমি বোধহয় ভুলেই গেছিলাম যে, অঅমার মাঝেও এক অঅমি আছে। যে অঅমি কেবল আমাকেই খোঁজে, কী দিনে, কী রাতে, কী ব্যস্তসমস্ত সব কাজের মাঝে; কি ঝগড়া মুখর দিনগুলিতে। এমনকি আমায় ...

Read More »