হোলি- প্রশান্ত মণ্ডল

0
111

হোলি
প্রশান্ত মণ্ডল
আমি ফাগুনের শুভেচ্ছা জানাতে পারি নি,
আমার মনে কোনও রঙ লাগেনি ————,
অথচ,
রঙের আবেশে উদ্বেলিত কৃষ্ণচূড়া, পলাশের মাথা,
দিগন্ত মাতোয়ারা ফাগুনের ফাগে,
আর আমরা,
খেলার ছলে দু’হাতে মেখেছি আবীর ছোঁয়া রঙ,
তবু,
বুকের ভিতর নেভে নি ললকানো আগুন শিখা!
চোখের সামনে ভেসে ওঠে, বারবার ভেসে ওঠে – –
সীমানা পেরিয়ে ছুটে আসে গরম বুলেট—-
আমার মায়ের বুকে, সীমান্ত রক্ষী ভাইয়ের বুকে – –
ফিন ধরা রক্তে ভিজছে মায়ের বুক,
বুক চিতিয়ে দাঁড়িয়ে আছে আমার ভাই!
মায়ের দু’চোখে জল,
চোখের জলে কি কখনো রক্ত মোছে?
রক্তের দাগ কখনও মোছে না।
আর,
মহল্লায়, মহল্লায় স্তুপাকৃতি বারুদ গন্ধে আবিষ্ট,
ওরা নিশ্চিন্ত বারুদের সাথে করে খেলা!
শুধুই অতিষ্ঠ আমরা,
অতিষ্ঠ সমাজ পরিবার পরিজন।
এ ফাগুন আজ বড় ক্লান্ত,
তবু ফাল্গুন আসে,
হোলির রঙ লাগে পলাশের ডালে,
আমরা রঙ মাখি আবীর ছোঁয়ায়,
হোলি এক অনুভব, একটু প্রেমের আবেশ!
তবু, ওদের কাছে হোলির কোনও মূল্য নেই,
বুমেরাং বারুদ – রক্তে ওরাই পুড়বে একদিন!
ক্লান্ত ফাগুনেও কোকিল ডাকে পলাশের ফাঁকে,
আমরা দু’হাতে মাখি আবীর ছোঁয়া রঙ,
বুকের রক্তে জ্বালি আগুন!
===0 ====

Prasanta Mandal
কাব্য গ্রন্থ প্রকাশিত /সাদা পরীর দেশে