স্বাধীনতা

0
20

স্বাধীনতা তুমি বড় অবাধ্য শব্দ
শুধু তোমার জন্য
উজানচন্ডী বিলের ধারে পড়ে আছে কত লাশ
কত মা কত বোনের হলো সর্বনাশ।

কাজল দিদির সিঁদুর বিহীন ললাট
পড়ে আছে ধবল রঙের শাড়ি
পাক সেনারা তুলে নিয়েছে ওর স্বামী সন্তান ফেরেনি আর বাড়ি।

দুখিনী মায়ের বিরহ পরান সোনা মুখ চাই
স্বাধীনতা তুমি নেই তাই
বাংলা ছেয়ে গেছে শকুন আর হায়েনায়
স্বাধীনতা শুধু তুমি নেই তাই
বাংলা মায়ের অনেক সন্তান লালন করে শকুন আর হায়েনায়।

তোমার জন্য স্বাধীনতা, শুধু তোমার জন্য
পঙ্কজ কাননে কুসমিত কোমলে ধরল কীট
পূর্ব দিগন্তের শেষে চানু বিবির চালা ঘর
খাঁ খাঁ করছে লুন্ঠিত উদাস দাওয়া
স্বাধীনতা শুধু তোমার লাগি।

স্বাধীনতা শুধু তুমি নেই
তার জন্য বাঙালি বিনিদ্র কেটেয়েছে কত রাত
আর কত থাকতে হবে বিনিদ্র
বল না হে স্বাধীনতা বল-

তোমার জন্য স্বাধীনতা
গগন থেকে পড়ছে অবিরাম ঝিরিঝিরি অগ্নি বারিধার
আরো কত ঝরাবে বল হে স্বাধীনতা বল-
না হয় বাঙালির হাত বাংলায় চল হে স্বাধীনতা
বাংলায় চল
তোমার অপেক্ষায় বাঙালি প্রহর গুনছে প্রাণের প্রিয়
হে স্বাধীনতা।

তোমার জন্য স্বাধীনতা, শুধুই তোমার জন্য
অকাতরে দিল কত প্রাণ মহি মতি কামাল নূরের মতো কত প্রাণ
আর কত প্রাণ চাও বল হে স্বাধীনতা বল –
বাঙালি তোমাকে পাওয়া জন্য তাই দেব
হে স্বাধীনতা
তাই দেবে –

স্বাধীনতা তোমার জন্য
আর কতকাল ভাসতে হবে দুখিনী মাকে অশ্রু গঙ্গায়
আর কত দেখাবে তুমি পিতামাতার সম্মুখে সন্তান হত্যার নির্মম দৃশ্য
আর কত দেখাবে তুমি হায়েনার হাসি
তোমাকে পাওয়ার জন্য বাঙালি সব সহ্য করছে
হে স্বাধীনতা।

স্বাধীনতার প্রধান শর্ত রক্ত দিতে হবে
তোমাকে পাওয়ার জন্য হে স্বাধীনতা
বাঙালি এক সাগর রক্ত দিয়েছে
তোমার শর্ত পূরণ আজ হে স্বাধীনতা
তোমার শর্ত পূরণ
আর তোমাকে বাংলায় আসার পথ কেউ বাধা দিতে পারবেনা হে স্বাধীনতা
কেউ বাধা দিতে পারবেনা
এবার যে তোমাকে আসতে হবে
দ্বিধা করো না হে স্বাধীনতা
দ্বিধা করো না –
তোমাকে যে বাংলায় আসতেই হবে
কষ্টে অজির্ত বাঙালির প্রিয় হে স্বাধীনতা।

————
রচনাকালঃ
১৫-১২-২০১৯

উৎসর্গঃ
( স্বাধীনতার জন্য যারা জীবন দিলেন)

জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব
জন্ম ১০ জুন ২০০১ গ্রামঃ নলছিয়া উপজেলাঃ রায়গঞ্জ জেলাঃ সিরাজগঞ্জ আমি একজন শিক্ষার্থী।