শূন্যতা বিষয়ক পংক্তিমালা – ১ – মাহামুদুল হাসান

তোমার বাড়ি এলে ক্লান্ত পথ বিদায় নিতো।
বিদায় নেওয়া মোড়ে কতো বিচিত্র অক্ষরহীন রূপক কাঁথা সেলাই হতো। তোমার বাড়ি এলেই সব ভূমিষ্ঠ সবুজ।
গেঁয়ো সবুজ মেঘবরণকে বলতো- আমার লাল ঘোড়া কই?

ঐ দেখ ট্রেনের মাহফিল, সানাই সন্যাসী আসছে|
আজ রাতে নাকি পাহাড়ি বৃষ্টি হবে| বৃষ্টিতে উড়বে দুটি ভাসমান ব্রিজ|
প্লাবিত হবে আঁধারের অরণ্যানী।

প্রতিদিন তোমার বাড়ি আসি, পথ গুলো কেন জানি বিদায় দ্যায় না আর|
পথে দেখি, ফসলের চালে বালকের ঘুড়ি খেলা করেএখনও, শুধু ডানপিটে রোদ্দুর তোমাকে জ্বালাতে আসে না।
শোনা হয় না মুসাফিরের- ওকে কিছু দাও
বেদনার প্রতিমা ঝরাপাতা ওর কাছ থেকে কিছু নাও।

একদিন তোমার বাড়ি এলেই ক্লান্ত পথ বিদায় নিতো।

মাহামুদুল হাসান
কবি মাহামুদুল হাসন ১০ জুলাই গোপালগন্জে জন্ম গ্রহন করেন ।১৯৯৮ সাল থেকে নিয়মিত ভাবে লেখা লেখি করে যাচ্ছেন। ২০১৪ সালে ভাষাচিত্র প্রকাশনী থেকে প্রথম কাব্য গ্রন্থ " লবণ ও লাবণ্যের দেহ" প্রকাশিত হয়েছে । দ্বিতীয় কাব্য গ্রন্থ " গুগলের নদি -ভূগোলের কাব্য " অপেক্ষায় আছে । কবিতার পাশা পাশি ছোট গল্প, উপন্যাস লেখার শখ আছে।