বিদিশার দিশায় – হিমেল কবি নুরইসলাম নুর

0
23

যখন ছিলেম আমি বিদিশার দিশায়
নিশিতপ সাগর হতে দুরে বহু দুরে
তখন দেখেছি প্রেম পাতায়-পাতায়
ঘাস ফড়িং কিংবা সবুজ ঘাসের দেশে।

যখনি ভুলিয়াছি তোমায়,ওগো বিদিশা;
নিশিথ হতে চলিয়াছি আরো নিশিথের পথে।
হঠাথ কোন অন্তিম আধারে:যখনি জ্বালিয়াছি আলো
জোনাকির দেশে।দেখিয়াছি-
এক নীল পরী,মেলিয়াছে ডানা.
বারিয়েছিলেম হাত অন্তিম নীলে।

দেখিয়াছি সেথায়;মরণ তিয়াসা
একরাশি নীল কিবা প্রজাপতি সমহার,
আরো দেখিয়াছি মরণ বিন্দু;অভ্র
চিরো সবুজের দেশে শিশিরের টলোমলো।

আরো দেখিয়াছি;প্রেম
হাসি,কান্না,বিরোহ-
অবুঝ যুবতীর কাম।
শ্রান্তির ছায়ায়,পড়ন্ত বিকেলে
ডেকেছি,বলে ‘খুকি’
নবযৌবনা হে!

হাজারো বছরের;অন্তিম পথ চলা
শুধু বিদিশার দিশায়।

Nurislam Nur
আমি হিমেল(সাহিত্যে ব্যাবহারের জন্য)।গনিত,ইংরেজি আর বিঙ্গানের মতো কঠোরোতার মাঝেই,জন্ম হয় আমার সাহিত্য চর্চার এক অতৃপ্ত অনুরাগ।আর অজান্তেই রচনা করে ফেলি;প্রেম,হাসি-কান্না,বিরহের এক বিশাল সম্রাজ্য।যার সিংহ ভাগই মানব-প্রেমের এক চিরায়ত উপখ্যান।আর তার সুচ সমতল ভাগে,ফুটে উঠেছে,মানব মাঝারে থাকা চির নিদ্রায়িত এক হিংস্র দানবের হুংকার। এ পর্যন্ত আমার রচিত: গল্পগ্রন্থ:পৌরাণিক সাহিত্যে পদাচরন,আমি অনিয়ম,বিদিশা,ডেকে হলো সারা,নিরাক পরা গ্রাম। কাব্য গ্রণ্থ:হিমেল ও শীথিল সাহিত্য সমগ্র,আমার কিছু কবিতা,প্রেম নিবাশ,দুপুর দগ্ধ পায়ে। বিঙ্গান ভিত্তিক গ্রন্থ:অমীমাংসিত সুত্রাবলী,রহস্য। নাটক:নীলিমা। উপন্যাস:শেশ কবে। প্রবন্ধ:মাণব শাস্ত্র,লেলিহান পথ। তাছারা রয়েছে কিছু অগোছালো কবিতা আর অসমাপ্ত কয়েকখানা গ্রন্থ। বোধ করি,নিয়তই গ্রন্থের নাম উল্লেখ্য পুর্বক লেখা গুলি "কবিতা ককটেল"পাতায় শেয়ার করবো। ...........আপনিও আপনাকে তুলে ধরুন,হয়তো বা আপনার মাঝেই লুকিয়ে আছে সে সুপ্ত প্রতিভা।নিশ্চয় এতে দেশ,জাতি এবং আপনার মঙ্গল রয়েছে।