নোলক বরণ – মল্লিকা রায়

0
18

যে মেয়েটি বসে ছিল
কিলবিল নরকের দলে ; মুখ তার নিরিবিলি
মৃদু হাসি , অাজ সে বন্যা কবলে-

দু’ছটাক্ জমি তার বিকালো দেনায়
ঘর গেল সুরভিত হাসিটুক নিয়ে
চাল – চুলো মহাজনী লুব্ধ গহ্বরে ; রপ্তানী ভাষা ।

সেদিন সহজ মা’ উপবাস দিয়ে
খুলে নিল সম্ভ্রম জাগতিক বলে
স্থির মেয়ে প্রথম পরেছে নাকে নোলকের সাজ;
প্রথম দেখেছে আলো কড়কড়ে নোটের দরাজ ;

বাবু বলে শিষ্যেরা অন্যের বেদখল হয়ে
মুছে দিল ভালো থাকা ,
ছোট মানুষের ছোট মেয়ে ;
পায়েল পরেছে মেয়ে দিনকত রাজশাহী ভোগ
জেনেছে মা কাজ পেলো মেয়ে
ঘরদোর ছিন্নতা অভাবের অনটন মুছে
এবারে পূর্ণ হবে রোসনায় আশা ।

পূব পশ্চিমে কানাকানি , গুটিয়েছে জগৎ সংসার
মুছে গেল ঝনঝনি কলসের ঢেউ
রং মুখ ব্যস্ততা ঠোটের কোলাজ
দিগন্তে আলোড়ণ প্রবল পৌরুষ
প্রতি অঙ্গ নিলামী আজ দামী শুধু পুঁজ রক্ত ঘাম
মায়ের লবির ফর্দে ভাগ্য ফেঁপে টাটা’র সমান ;

জলে ভাসা ঘর আজ অগাধ বনেদি
ভুলে গেছে মা ডাক ছেলে ;
বড় বাড়ী এলাকা জলের দখলে ,
বড় – ছোট নানা মাপ , নদী – নালা ,খাল – বিল
পঁচা , ঘোলা , নর্দমা স্রোতের নমুনা ;
মুছেছে শুদ্ধ স্রোত নানা বিধ বন্যা উপক্রম
গলাজলে কাঁদে মেয়ে স্রোতেরা ঘিরেছে বাকী,
নির্বিবাদ অবস্থাণ ঘর —

দু’হাত বাড়ান মা সঙ্কটে আয় শুধু চলে
মেয়ে তোর মুখ দেখি নোটের আদলে ।
……………………………………………………………….