Home / কবিতা / নিষিদ্ধতা আর আমি – মল্লিকা রায়

নিষিদ্ধতা আর আমি – মল্লিকা রায়

বইটা, ধ্যুত্তরি স-শরীর ছড়াছড়ি
ডেক্স থেকে গোপন দেরাজে
ও তো প্রায়ই দেখি নীলুদা’র
চায়ের দোকানে……..
পোস্টারে হিজিবিজি
নেড়ু চাচা আড়চোখ
হাবলার জব্বর শিষ্
দা’ ঠাকুর সাত কুড়ি হলো……
নড়বড়ে ফোকলায় জিভ্
কানের কাছে মুখোমুখি
উফ্ কি হেব্বী মাইরি !!
মুযোগ”টা চেনা খুব নীলুদা’র
গরমাগরম সেল্ জমাট দোকান’দার ।

চপ বেঁচে হাবুদা’র বৌ’য়ের নাত্ মেয়ে
দেনা টুক্ ছুঁয়ে দেয় গান গেয়ে
চিবুকের কচি পানা নধর অধর
ঠোট চিপে হেরো দাদু বেজায় আদর।

বইয়ের পাতে রেখে চাল দাল তেল
পুরু চশমার লেন্স
করেছি প্রবেশ।

সেদিন বিকেলে অকস্মাৎ
ফাঁকা ঘর বেজায় বিষাদ
একে একে ঘরে ফেরে
স্নেহের সংসার………….

এ মার্কা সেই ,বৌ বলে বইটা দারুণ জানো
সবটা ঠাকুর…………
পিছে পিছে ছেলে মেয়ে
উফ্ কি নির্লজ্জ ধরণ ।

About মল্লিকা রায়

মল্লিকা রায়
আমি মল্লিকা রায় ,উঃ ২৪ পরগণা জেলায় বারাসাত শহরের বাসিন্দা, ছোটবেলা থেকে নিছক আবেগের বশে লেখায় প্রবেশ। পাশে পড়াশুনা,জীবন-যাপন ও বিভিন্ন খ্যাতিমান কবি,সাহিত্যিকদের লেখায় আত্মনিবেদন।দীর্ঘকাল ধরে কিছু ছোট পত্র-পত্রিকায় সৌজন্যমূলক লেখায় আত্ম-প্রকাশ। পারিবারিক প্রেরণার উৎস মা, যার একাংশ জুড়ে আমার তার প্রতি প্রবল আকূতি রয়েছে, বিশেষত লেখার মূল সূত্র বিভিন্ন সামাজিক প্রেক্ষাপটে মানুষের নানান প্রভেদ-বিভেদ, ঘাত-প্রতিঘাত প্রভৃতি আমায় লেখণী তুলতে উদ্বুদ্ধ করেছে। বাংলা কবিতা আসরে প্রবেশ প্রায় ২০১৫ তে, এডমিন এবং অজস্র সহযোগী বন্ধুর সহযোগিতায় এ পর্য়ন্ত পৌঁছানো।

মন্তব্য করুন