কবির কলমে বর্ষার কবিতা

কবির কলমে বর্ষার কবিতা
কলমে-লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী

শ্রাবণে বাদল ঝরে, রিম ঝিম বৃষ্টি পড়ে
অজয় নদীতে এলো বান,
কালিমাখা মেঘে ঢাকা সূর্য নাহি যায় দেখা
কালো মেঘে বাদলের গান।

দূরে আকাশের পাড়ে মেঘেরা হুঙ্কার ছাড়ে
কালো মেঘে বিজুলির ধারা,
নদীর ঘাটের কাছে নৌকাখানি বাঁধা আছে
ছুটে নদী পাগলের পারা।

গাছ ভাঙে মড় মড় বাজ পড়ে কড় কড়
দূকূল ছাপিয়ে নদী বয়।
বাড়িঘর ভাসে জলে প্লাবনের কোলাহলে
চিত্ত মাঝে জাগে সংশয়।

মাঠ হতে আসে চাষী চারদিকে বানভাসি
গাঁয়ে ঢোকে প্লাবনের জল,
গাছে গাছে পাখি সব তুলে আর্ত কলরব
নীড়হারা পাখিদের দল।

টুপুর টাপুর করে শ্রাবণের বারি ঝরে
জলে ভরা খাল বিল মাঠ,
বরষার জল নামে আমাদের এইগ্রামে
ডুবে গেছে তালদিঘি ঘাট।