সময় নাও – শ্রীজাত

মৃত্যু নিয়ে লিখতে গিয়ে অসাড় হওয়া হাত
বাড়িয়ে দেব তোমায়। তুমি পাওনি সাক্ষাৎ
পীড়াবরণ ফুলের। তাই মুখে অমন ঋণ
জাগিয়ে রাখা সম্ভবও, যে মুহূর্তে রঙিন
তাকে চেনাও। তাকে চেনাও। বিফলে রঙ্গিত
যেমন ডানা চিনিয়ে দেয় পরিযায়ীর শীত,
মৃত্যু নিয়ে লিখতে গিয়ে অসাড় হলো হাত
কেমন অসময়ের, এই অশনিসম্পাত…

ফিরে আসার কথাই ছিল। ফিরিয়ে দিলে মন।
পর্ণমোচী শরীর, তার চিরহরিৎ মন…

সময় নাও। বলেছিলেন অলোকরঞ্জন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।