যারে হাত দিয়ে মালা দিতে পার নাই – কাজী নজরুল ইসলাম

এই তীর্থধামে মিলনের ব্রজে বেজে ওঠে মাথুরের বিদায়-বাঁশি। যে-বিরহ আনে অশ্রু, সেই বিরহই জ্বালায় আগুন। যে-মেঘ ফুল ফোটায়, সেই মেঘেই থাকে অশনি। বিরহের তপস্যা যে-পুরুষকে করেছে উদাসীন সন্ন্যাসী, মিলনের বিলাস-কুঞ্জে সে তার প্রিয়ার মৃত্যু কামনা করতে পারে না। তাই নির্মম হয়ে সে চলে যায় নিরুদ্দেশের পথে। পথের প্রান্তে লুটিয়ে কাঁদে তার বিরহিণী প্রিয়ার মতো তার গানের সুর–

(গান)

যারে  ​​ ​​​​ হাত দিয়ে মালা দিতে পার নাই ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ কেন মনে রাখ তারে? ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ ভুলে যাও মোরে ভুলে যাও একেবারে॥ ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ আমি গান গাই আপনার দুখে,​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ তুমি কেন আসি দাঁড়াও সুমুখে, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ আলেয়ার মতো ডাকিয়ো না আর ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ নিশীথ-অন্ধকারে॥ ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ দয়া করো মোরে দয়া করো,

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ আর  ​​ ​​​​ আমারে লইয়া খেলো না নিঠুর খেলা; ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ শত কাঁদিলেও ফিরিবে না আর

সেই  ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ শুভ লগনের বেলা।

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ আমি ফিরি পথে,​​ তাহে কার ক্ষতি,

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ তব চোখে কেন সজল মিনতি?

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ আমি কি ভুলেও কোনোদিন এসে ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ দাঁড়ায়েছি তব দ্বারে॥

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ ভুলে যাও মোরে ভুলে যাও একেবারে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।