বন্দি তোমায় ফন্দি-কারার গণ্ডিমুক্ত বন্দিবীর,

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ লঙ্ঘিলে আজি ভয়দানবের ছয় বছরের জয়প্রাচীর।

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ বন্দি তোমায় বন্দিবীর

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ জয় জয়স্তু বন্দিবীর!!

অগ্রে তোমার নিনাদে শঙ্খ,​​ পশ্চাতে কাঁদে ছয়-বছর,

অম্বরে শোনো ডম্বরু বাজে–‘অগ্রসর হও,​​ অগ্রসর!’

কারাগার ভেদি নিশ্বাস ওঠে বন্দিনী কোন্ ক্রন্দসীর,

ডান-আঁখে আজ ঝলকে অগ্নি,​​ বাম-আঁখে ঝরে অশ্রু-নীর।

বন্দি তোমায় ফন্দি-কারার গণ্ডি-মুক্ত বন্দি-বীর,

লঙ্ঘিলে আজি ভয়-দানবের ছয় বছরের জয়প্রাচীর।

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ বন্দি তোমায় বন্দিবীর

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ জয় জয়স্তু বন্দিবীর!!

 ​​​​ 

পথতরুছায় ডাকে ‘আয় আয়’ তব জননীর আর্ত স্বর,

এ আগুন-ঘরে কাঁপিল সহসা ‘সপ্তদশ সে বৈশ্বানর’।

আগমনি তব রণদুন্দুভি বাজিছে বিজয়-ভৈরবীর,

জয় অবিনাশী উল্কা-পথিক চিরসৈনিক উচ্চশির।

বন্দি তোমায় ফন্দি-কারার গণ্ডিমুক্ত বন্দিবীর,

লঙ্ঘিলে আজি ভয়-দানবের ছয় বছরের জয়প্রাচীর।

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ বন্দি তোমায় বন্দিবীর

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ জয় জয়স্তু বন্দিবীর!!

 ​​​​ 

রুদ্ধ-প্রতাপ হে যুদ্ধবীর,​​ আজি প্রবুদ্ধ নব বলে।

ভুলো না বন্ধু,​​ দলেছ দানব যুগে যুগে তব পদতলে!

এ নহে বিদায়,​​ পুন হবে দেখা অমর-সমর-সিন্ধুতীর,

এসো বীর এসো,​​ ললাটে এঁকে দি অশ্রুতপ্ত লাল রুধির।

বন্দি তোমায় ফন্দি-কারার গণ্ডিমুক্ত বন্দি-বীর,

লঙ্ঘিলে আজি ভয়-দানবের ছয় বছরের জয়প্রাচীর।

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ বন্দি তোমায় বন্দিবীর

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ জয় জয়স্তু বন্দিবীর!!

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।