দু-চার বছর – তারাপদ রায়

মাঝে মধ্যে দেখা হবে। মাঝে মধ্যে চোখের আড়ালে
দু-চার বছর কিংবা ধরো সেই জীবনানন্দের
জীবন গিয়েছে চলে কুড়ি কুড়ি বছরের পার ;
এইভাবে ঝরা পাতা, হেমন্তের নরম বাতাস
কিছু বৃষ্টি, কুয়াশা ও জল, কিংবা জলের মতন
চলে যাবে দিন ও সময়, সময় ও ভালোবাসা।

ভালোবাসা? হয়তো বা কোনোদিন তবুও যাবে না,
দু-চার বছর কিংবা তারো পরে হঠাৎ হঠাৎ
দেখা হবে, ঢেউয়ের শব্দের মতো বুকের ভিতরে
এক স্বচ্ছ করতোয়া, অবলীলাক্রমে তার জলে
ভেসে গেছে আমাদের তোমাদের আমার তোমার
কথাবার্তা দিন রাত্রি, তবু আজো দু-চার বছর।

দু-চার বছর বাদে একদিন দেখা হয়ে যাবে,
দু-চার বছর বাদে একদিন দেখা হয়ে যায়।

1 thought on “দু-চার বছর – তারাপদ রায়”

  1. ইকরামুল হক শান্ত

    সময়ের খেলায় আমরা বারবার হেরে যাই । অনেক সময় নিজেদের অজান্তেই ধুরে চলে যাই । আবার সময়ের সাথে চলতে চলতে যখন আর প্রে ওঠি না তখন চলে যাই বহু দূরে ।আমাদের সবার একটা গল্প আছে নিজেদের গল্প । একান্ত নিজস্ব গল্প । একটা বয়সের গল্প আছে ।টাকা নেই অবস্থান নেই কিছুই নেই তবুও দিব্বি ভালবাসার একটা সম্পর্ক থাকে । বয়স বারার সাথে সাথে আমাদের পাশের মানুসের গল্প গুলো কমে আসে । কালে ভদ্রে দেখা হবার মত কথা চলে আসে। একটা সময় যত টা না কাছে ছিলাম যখন চলে জায় তারও চেয়ে অনেক দ্রত এবং অনেক দূরে চলে জায়। দেখা হয় মাঝে মাঝে কিন্তু সেই ভালবাসার প্রকাশ আর হয়না ।যাদের জন্য জিবনের অনেক কিছুই করতে চেয়েছিলাম সেই আমি আছি তারা আছে । কিন্তু আজ সেই কথাগুলো বোবা হয়ে গেছে …।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।