আরামের মেয়ে – জয়া গুহ (তিস্তা)

0
88

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জাপানী সেনাদের ‘কমফর্ট’ এর জন্য লক্ষ লক্ষ কোরিয়ান মেয়েদের যৌনদাসী করে পাঠানো হয়েছিল।তাদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে লেখা।

বেহুলা সতীর ভেলায় উঠেছে
লখীন্দরের লাশ
সীতার চিতায় জ্বলছে আগুন
পোড়েনি এখনো আশ
নারী মাতা হল,কন্যা,দয়িতা
নারী আরামের মেয়ে
বিশ্বযুদ্ধে জয় পরাজয়ে
রক্ত অশ্রু বেয়ে
পরীখার খাতে, গুমরে মরেছে
কত ফাগুনের তৃষা
ছেঁড়া যোনীপথে বছর বারোর
অসাড় অনামিকা
শহীদ, জওয়ান তৃষ্ণা মেটায়
রাত পরিখার হাতে
পেটের খিদে, একটুকু ভাত
মিথ্যার ছলনাতে
বিশ্বযুদ্ধে কত যে শহীদ
হিসাব রেখেছো  তার
শুধু আলো দিতে আরামের মেয়ে
কি জবাব দেবে তার?
কোরিয়ান মেয়ে জাপানী শিবিরে
সৈন্য সেবার ভার
প্রতিরাত কাঁদে শীৎকারে তার
সাহারার হাহাকার
মার বুকে বাজে মেয়ের বিলাপ
“মাগো, জ্বলে পুড়ে আমি খাক্”
বুক ধুকপুক, চোখে নেই ঘুম
রাত পাহারায় চোখ
বাঁচাতে গেলেই হায়না টানবে
ভয়ে স্নেহ বলি হোক

কেটে গেছে যুগ
সময়ের স্রোতে
বোড়ের চালের ঘুঁটি হতে হতে
আজ প্রতিবাদ! যুদ্ধাপরাধ
ক্ষতিপূরণের রাজনীতি হাত
শুধুই সমঝোতা-
রাষ্ট্র শোষক,ইজ্জত নিল
অন্যদেশের চিতা
ক্ষতিপূরণ এর টাকায় মিটলো
দেশ নায়কের তৃষা
রাষ্ট্র পরিত্রাতা!
রাষ্ট্র নায়ক পিতা!
রাজপথে তার চাইছে জবাব
সেদিনের ধর্ষিতা।

দয়া করে মন্তব্য করুন

দয়া করে মন্তব্য করুন
দয়া করে আপনার নাম লিখুন