আমি  ​​​​ বিধির বিধান ভাঙিয়াছি,​​ আমি এমনি শক্তিমান!

​​ মম  ​​​​ চরণের তলে,​​ মরণের মার খেয়ে মরে ভগবান।

 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ আদি ও অন্তহীন

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ আজ  ​​​​ মনে পড়ে সেই দিন –

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ প্রথম যেদিন আপনার মাঝে আপনি জাগিনু আমি,

​​ আর  ​​​​ চিৎকার করি কাঁদিয়া উঠিল তোদের জগৎ-স্বামী।

​​ ভয়ে  ​​​​ কালো হয়ে গেল আলো-মুখ তার।

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ ফরিয়াদ করি গুমরি উঠিল মহা-হাহাকার –

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ ছিন্ন-কণ্ঠে আর্ত কণ্ঠে তোমাদের ওই ভীরু বিধাতার –

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ আর্তনাদের মহা-হাহাকার –

 ​​​​ যে, ​​ বাঁচাও আমারে বাঁচাও হে মোর মহান,​​ বিপুল আমি!

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ হে মোর সৃষ্টি! অভিশাপ মোর!

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ আজি হতে প্রভু তুমি হও মম স্বামী!’ –

​​ শুনি  ​​​​ খলখলখল অট্ট হাসিনু,​​ আজিও সে হাসি বাজে

 ​​​​ ওই  ​​​​ অগ্ন্যুদ্‌গার-উল্লাসে আর নিদাঘ-দগ্ধ

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ বিনা-মেঘের ওই শুষ্ক বজ্র-মাঝে!

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ স্রষ্টার বুকে আমি সেই দিন প্রথম জাগানু ভীতি, –

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ সেই দিন হতে বাজিছে নিখিলে ব্যথা-ক্রন্দন গীতি!

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ জাপটি ধরিয়া বিধাতারে আজও পিষে মারি পলে পলে,

 ​​​​ এই  ​​​​ কালসাপ আমি,​​ লোকে ভুল করে মোরে অভিশাপ বলে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।