অপরূপ সে দুরন্ত – কাজী নজরুল ইসলাম

ভাব-বিলাসী অপরূপ সে দুরন্ত,​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ বাঁধন-হারা মন সদা তার উড়ন্ত!

সে  ​​​​ ঘুরে বেড়ায় নীল আকাশে।

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ চাঁদের সাথে মুচকি হাসে, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ গুঞ্জরে সে মউ-মক্ষীর গুঞ্জনে,

সে  ​​​​ ফুলের সাথে ফোটে,​​ ঝরে পরাগ হয়ে অঙ্গনে।

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ তার  ​​ ​​​​ চোখের পলক ভোরের তারায় ঝলে,

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ ধুমকেতু তার ফুলঝুরি,​​ সে উল্কা হয়ে চলে। ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ অপরূপ সে দুরন্ত,​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ মন সদা তার উড়ন্ত।

 

সে  ​​​​ প্রথম-ফোটা গোলাপ-কুঁড়ির সনে–

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ হিঙুল হয়ে ওঠে লাজে হঠাৎ অকারণে।

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ ধরা তারে ধরতে নারে ঘরের প্রদীপ দিয়ে,

সে  ​​​​ শিশির হয়ে কাঁদে,​​ খেলে পাখির পালক নিয়ে। ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ সে  ​​ ​​​​ ঝড়ের সাথে হাসে ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ সে  ​​ ​​​​ সাগর-স্রোতে ভাসে,

সে  ​​​​ উদাস মনে বসে থাকে জংলা পথের পাশে ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ অপরূপ সে দুরন্ত, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ মন সদা তার উড়ন্ত!

 

সে  ​​​​ বৃষ্টিধারার সাথে পড়ে গলে, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ অস্ত-রবির আড়াল টেনে লুকায় গগন-তলে। ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ দীপ্ত রবির মুকুরে সে আপন ছায়া দেখে,

সে  ​​​​ পথে যেতে যায় যেন কি মায়ার মোহ এঁকে। ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ ঝরা তারার তির হানে সে নিশুত রাতের নভে,

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ ঘুমন্তরে জাগিয়ে সে দেয় বিপুল বজ্র-রবে। ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ অপরূপ সে দুরন্ত, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ মন সদা তার উড়ন্ত!

 

সে  ​​​​ রঙিন প্রজাপতি

কভু ​​ ফুলের দিকে মতি

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ কভু  ​​​​ ভুলের দিকে গতি

তার  ​​​​ রুধির-ধারা নদীর স্রোতের মতো

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ দেহের কূলে বদ্ধ তবু মুক্ত অবিরত।

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ রূপকে বলে সঙ্গিনী সে,​​ প্রেমকে বলে প্রিয়া,

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ রূপ ঘুমালে ঊর্ধ্বে ওঠে আত্মাতে প্রেম নিয়া।

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ অপরূপ সে দুরন্ত, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ মন সদা তার উড়ন্ত।

 ​​​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ মরণকে সে ভয় করে না,​​ জ্ঞানীর সভায় ভয়,–​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ ভাবের সাথে ভাব করে সে অভাব করে জয়।

তার ​​ তরল হাসি সরল ভাবে মুগ্ধ সবার মন,

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ মন ভরে না জ্ঞানীর,​​ করে অর্থ অন্বেষণ।

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ চোখ আছে যার,​​ তারই চোখের পাতা টিপে ধরে, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ হাতিশালায় যায় না,​​ যায় ফুল ফোটে যে-ঘরে।

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ তার  ​​​​ পথের পথিক সাথি,

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ তার  ​​​​ বন্ধু নীরব রাতি, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ খ্যাতির খাতায় চায় না চাঁদা,​​ চাঁদের সাথে খেলে,

সে  ​​​​ কথা কহে,​​ মুক্ত-পাখা পাখির দেখা পেলে। ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ অপরূপ সে দুরন্ত, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ মন সদা তার উড়ন্ত!

 ​​​​ 

তারে  ​​​​ জ্ঞান-বিলাসী ডাকে না,​​ তায় গাঁয়ের চাষি ডাকে,​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ তৃষার জলের পাত্র-সম জড়িয়ে ধরে তাকে। ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ সে  ​​ ​​​​ রয় না আন্দোলনে,

যেথা  ​​​​ আনন্দ হয় আন্দোলিত যায় সে গোপন বনে।

​​ সে  ​​ ​​​​ চাঁদের আলো,​​ বর্ষা-মেঘের জল,

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ আপনার খুশিতে ঝরে আপনি সে চঞ্চল।

​​ সে  ​​​​ চায় না ফুলের মালা,​​ সে ফুলের মধু চায়, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ সে  ​​ ​​ ​​​​ চায় না তাহার নাম, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ দান দিয়ে সে পালিয়ে বেড়ায় ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ চায় না তাহার দাম। ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ অপরূপ সে দুরন্ত, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ মন সদা তার উড়ন্ত!

​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ কেউ যদি তায় ভালো বলে,​​ আলোর বুকে হয় সে লয়, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ বলে, ‘ওগো সুন্দর মোর,​​ তোমায় বলে,​​ আমায় নয়!’​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ ছন্দ তাহার স্বচ্ছন্দ,​​ দ্বন্দ্ব মাঝে রয় না সে, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​​​ যে বড়ো তাঁর সুনাম নিয়ে ক্ষুদ্র কথা কয় না সে।

তার  ​​​​ মন্দ শোনার নাইকো সময়, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ রসের সাথে নিত্য প্রলয়,

তারে  ​​​​ নিন্দা দিলে চন্দন দেয় ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ সে  ​​ ​​​​ নন্দন-জাদুকর, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ সুন্দর সে,​​ তাই দেখে না কাহারেও সে অসুন্দর।

তারে  ​​​​ লোভ দেখিয়ে যায় না ধরা, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ আপনাকে যে দিতে চায়– ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ প্রেম-ভিক্ষু দুরন্ত সে লুটিয়ে পড়ে তাহার পায়। ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ পূর্ণের সে প্রতিচ্ছায়া,​​ অপরূপ সে দুরন্ত, ​​ 

 ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​ ​​​​ মন কাঁদে মোর তারই তরে,​​ মন সদা যার উড়ন্ত!

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।