Skip to content

অচেনা গ্রহ – তাপস ঠাকুর

যাকে ভেবেছি সভ্যতা,
কেন তার বিন্দুতে বিন্দুতে
মানুষের রক্তের দাগ ?
যাকে বলছি বিশ্বায়ন,
কেন তার চোখ ভরা লোভ ?
বাজার দখলের হিংস্র ধাবায়
কেন প্রতিটি জাতি বিপন্ন প্রায় ?
পশু আর হিংস্র জানোয়ার থেকে রক্ষা পেতে,
যাকে অস্ত্র বলেছি,
সে কেন শিশুদের চোখ উপরে নেয় ?
সে কেন ধ্বংস লীলায় মাতোয়ারা সারাক্ষণ ?
যাকে নেতা বলেছি,
সে কেন পাইক পেয়াদার মত,
আমার উঠানে ঢোলে বারি দেয় ?
যাকে বিজ্ঞান বলেছি,
সে কেন অজ্ঞানের মত ভয়ানক হয় ?
যাকে ডাক্তার কিংবা উকিল বলেছি,
সে কেন ডাকাতের মত,
নিঃস্বকে আরো নিঃস্ব করে দেয় ?
এ কেমন বিশ্বাসঘাতকতা !
নিজের সাথে নিজের বিশ্বাসঘাতকতা,
এ কী বরবতা নয় ?
এ কী হিংস্রতা নয় ?

এই সবুজ গ্রহটিকে,
প্রতিটি মুহূর্তে দুষিত- অচেনা মনে হয় এখন ।
এখানে প্রতিটি জীবন এখন অনিশ্চিত ।
এ গ্রহ বাসযোগ্য নয় আর ।
এসো প্রত্যয়ী হই
এক নতুন পৃথিবী গড়ার,
যেখানে লোভ-হিংসা,
অথবা কোনরূপ কোন বিদ্বেষ নেই।
বর্ণভেদ কিংবা- নেই কোন শ্রেণী সংগ্রাম ।
ঠিক আমার স্বপ্নের কবিতার মত ।
সমতা ও শান্তির পবিত্র বিশ্বাস নিয়ে,
উড়ে যাব –চলে যাব,
সেই গ্রহে-সেই স্বপ্নে ।

1 thought on “অচেনা গ্রহ – তাপস ঠাকুর”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Ads Blocker Image Powered by Code Help Pro

অ্যাড ব্লক পাওয়া গেছে!!

সত্যি বলছি, আমরাও বিজ্ঞাপন পছন্দ করিনা! কিন্তু বিজ্ঞাপন এই ওয়েবসাইটকে বিনামূল্যে চালাতে সাহায্য করে! 

দয়া করে অ্যাড ব্লকার বন্ধ করে পুনরায় লোড করুন।